• শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০৪:২৯ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

মালয়েশিয়া হাইওয়ে থেকে তুলা ছবি

মালয়েশিয়ায় বেড়েই চলছে লকডাউন

আন্তর্জাতিক ডেক্স
প্রকাশ হয়েছে : বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৩:৪৮ am
                             
                                 

রবিউল ইসলাম রনি,আন্তর্জাতিকঃ মালয়েশিয়ায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ভয়াবহ রকম বৃদ্ধি পেতে থাকায় আবারও ২ সপ্তাহের জন্য মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (এমসিও) ঘোষণা করা হয়েছে। ২৬ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হওয়া মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (এমসিও) ৪ ফেব্রুয়ারি শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা বাড়িয়ে ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারি) দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি বিন ইয়াকুব এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

দেশের বর্তমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে জাতীয় সুরক্ষা কাউন্সিল ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরামর্শক্রমে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানান, দেশটির সারওয়াক প্রদেশ ব্যতিত বাকি সবগুলো প্রদেশে সরকার ঘোষিত বিভিন্ন বিধিনিষেধগুলো ও আগের মতো বহাল থাকবে। পাশাপাশি দেশটির আন্তঃরাজ্য ভ্রমণের ওপর চলমান নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে। বর্তমানে এমসিও লকডাউনের নির্দেশনাবলী অমান্য করলে এক হাজার রিঙ্গিত অথবা তাকে গ্রেফতার করা হচ্ছে। আগামি ৫ ফেব্রুয়ারী থেকে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং সিস্টেম (এসওপি) বিভিন্নভাবে প্রয়োগ করা হবে।

এছাড়াও তিনি জানান, এমসিও’র কারণে উৎপাদন ও নির্মাণ খাতে ক্ষতির মাত্রা প্রকট আকার ধারণ করেছে। এ খাতে প্রতি দিনের অনুমিত ক্ষতির পরিমাণ মালয়েশিয়ান মুদ্রায় প্রায় ২ দশমিক ৪ বিলিয়ন।

এদিকে, দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানান, যে সকল নিয়োগকর্তা এখনো তাদের বিদেশি কর্মীদের উপর কভিড টেস্ট প্রয়োগে ব্যর্থ হয়েছে তাদের আগামি ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে কভিড-১৯ স্ক্রিন টেস্ট দেয়ার আহ্বান জানান। অন্যথায় তাদের কর্মীদের অস্থায়ী কাজের পারমিট রিনিউর ক্ষেত্রে বাজেয়াপ্ত করা হবে বলেও তিনি জানান।

দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৪৫৫ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২১ জনের। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ২২ হাজার ৬২৮ জন। এ পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ৭৯১ জন।

সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছেন ১ লাখ ৭৩ হাজার ৯৯০ জন। তবে দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে কোনো বাংলাদেশির মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 6
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর