• বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০১:৫৭ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে লক্ষ্মীপুরে বৃক্ষরোপণ ও ঢেউটিন বিতরণ কেক কাটা ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত স্বেচ্ছাসেবকলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে গৌরীপুরে এতিম শিশুদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ ধর্মপাশায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিনামুল্যে মাস্ক বিতরণ রাজারহাটে সেনাবাহিনীর নিজস্ব রেশন দিয়ে সুস্থ-অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ডাসার উপজেলা প্রেসক্লাবে মিজান সভাপতি, জাফরুল সম্পাদক নির্বাচিত ঘোড়াঘাটে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ ও ঢেউটিন বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে স্বেচ্ছাসেবকলীগের শ্রদ্ধা নিবেদন বকশীগঞ্জে করোনার সংক্রমণ রোধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম অব্যাহত শ্যামনগরে অর্ধলক্ষাধিক টাকার চিংড়ী বিনষ্ট

আক্কেলপুরে দিন দিন বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা

মো: সকেল হোসেন, আক্কেলপুর, জয়পুরহাট
প্রকাশ হয়েছে : শনিবার, ১২ জুন ২০২১ | ৮:৩৯ pm
                             
                                 

জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে প্রতিদিন হু-হু করে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। স্বাস্থ্য সচেতনতা ও সরকারি বিধি নিষেধ পালনে উদাসীনতা উপজেলার সর্বত্র। চিকিৎসক পরামর্শ দিলেও করোনা পরিক্ষা করতে অনীহা অধিকাংশদের।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, গত ২৯ মে থেকে ১০ জুন পর্যন্ত আক্কেলপুরে করোনা আক্রান্ত রোগী সংখ্যা ১৯ জন। এর মধ্যে ১৮ জন নিজ বাসায় হোম আইসোলেশনে এবং ১ জন বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল হাসপাতালে আইসোলেশনে রয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে ২ জনের পিসিআর টেষ্ট ও ১৭ জনের র‌্যাপিড এ্যান্টিজেন্ট টেষ্ট এর মাধ্যমে করোনা পজেটিভ সনাক্ত হয়েছে। এই ১৯ জনের মধ্যে আক্কেলপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৮ জন রয়েছেন। আক্রান্তদের লকডাউন নিশ্চিত করছেন উপজেলা প্রশাসন।

উপজেলার বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা গেছে, রাস্তাঘাট, হাট-বাজার ও বিভিন্ন স্থানে চলাচলকারীদের মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতায় নেই। দেখা যায়নি কারো মুখে মাস্ক। সাধারণ বিভিন্ন পরিবহনের আধিকাংশই যেমন, বাস, ভ্যান, রিক্সা, ব্যাটারি চালিত অটো রিক্সা ইত্যাদি স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে করছেন যাত্রী পরিবহন করছে, অনেকাংশেই গুনতে হচ্ছে বাড়তি ভাড়ার টাকা। সরকারি নিষেধ অমান্য করে বিভিন্ন দোকানপাট রাত ৮ টার পর খোলা রয়েছে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে। এ দিকে জনগণকে প্রশাসন স্বাস্থ্য সচেতন করতে মাইক দিয়ে প্রচার করছে।

উপজেলার সচেতন মানুষদের সাথে কথা বল্লে তারা বলেন, প্রশাসন যদি মাঠ পর্যায়ে শতভাগ মাস্ক পড়া ও স্বাস্থ্য সচেতন করতে পারে তাহলে আমাদের আক্কেলপুরে কোভিড১৯ নিয়ন্ত্রয় করা যাবে।

আক্কেলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. রুহুল আমিন সরকার সাংবাদিকদের বলেন, হাসপাতালে জ¦রসহ বিভিন্ন রোগে চিকিৎসা নিতে আসা সন্দেহভাজনদের করোনা পরিক্ষার পরামর্শ দিলে অধিকাংশই পরীক্ষা না করে চিকিৎসা না নিয়ে হাসপাতাল ছেড়ে চলে যায়। তবে যদি পরীক্ষার মাধ্যমে আক্রান্তদের আলাদা করা যায় এবং শতভাগ মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করা যায় তবে অন্যদের সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়।’

উল্লেখ্য, আক্কেলপুর উপজেলাধীন রুকিন্দীপুর ইউনিয়নের মাতাপুর গ্রামের ৭৮ বছর বয়সী এক ব্যাক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ৮ জুন বগুড়া সি.এইচ.এম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগের আরো খবর