• সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ০৪:০৯ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
লক্ষ্মীপুর প্রেস ক্লাব ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরণ জাককানইবি’র সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত গৌরীপুর পৌরসভায় নৌকাকে বিজয়ী করতে বিশাল পথসভা শ্যামনগরে আরাফাত রহমান কোকোর ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া অনুষ্ঠান শ্যামনগর থানা পুলিশের অভিযানে পলাতক আসামী আটক মির্জাপুরে আদর্শ যুব পরিষদ’র শীতবস্ত্র বিতরণ বাগেরহাটে মানবাধিকার কমিশনের নতুন কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত দুর্ধর্ষ সাইফুলের দু চোখ নষ্ট ও পা ভেঙে দিয়েছে শরণখোলার অতিষ্ট জনতা বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন ঘাটাইল উপজেলা ও পৌর শাখার কমিটির পরিচিতি ও শপথ অনুষ্ঠান শ্যামনগর নকিপুর সরকারি এইচসি হাই স্কুলে যেীন হয়রানী প্রতিরোধ কমিটির সভা

স্থানান্তরের পায়তারায় ক্ষুব্ধ কৃষকরা

লক্ষ্মীপুরে প্রদর্শনীর আশায় বীজ বপণ করেনি কৃষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ হয়েছে : শুক্রবার, ৮ জানুয়ারী ২০২১ | ১২:২৯ am
                             
                                 

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কৃষি খামার যান্ত্রিকরণ প্রদর্শনী বরাদ্দ পাওয়ার আশায় অন্য কোনো বীজ বপণ করেনি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের চরমনসা গ্রামের কৃষকরা। সংশ্লিষ্টরা কৃষকদের ২’শ একর জমি থেকে ৫০ একর জমি নির্বাচন করে এখন প্রদর্শনী প্লট অন্যস্থানে দেওয়ার পাঁয়তারা করার অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী কৃষকরা। এতে কৃষকদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এনিয়ে চলতি বছরের ২ জানুয়ারি উপজেলার পশ্চিম চরমনসা গ্রামের স্কিম প্রজেক্ট ম্যানেজার কৃষকদের পক্ষে প্রদর্শনী প্লট বরাদ্দ পাওয়ার জন্য কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিবের কাছে একটি আবেদন জমা দিয়েছেন।

আবেদন সূত্রে ও কৃষকদের থেকে জানা যায়, ২০১৯-২০ অর্থবছরে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের রাজস্ব প্রকল্পের আওতায় প্রদর্শনী প্লট বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এতে ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের অন্তগত ৬নং ওয়ার্ডস্থ চরমনসা-চরভূতা গ্রামের মৃত- মফিজ উল্যাহ ছেলে মোঃ বাবুলের ইরিকেশনকৃত প্রজেক্টের ২শ একর জমি থেকে ৫০ একর জমি নির্বাচন করে কৃষি অফিস। সেই অনুযায়ী মাঠ কর্মকর্তা খালেক, ফারুক ও উপজেলা কৃষি অফিসার হাসান ইমাম জমি পরিদর্শন শেষে সন্তোষ প্রকাশ করেন বলে জানিয়েছে কৃষকরা। পরবর্তীতে কৃষকদের ৫০ একর জমির প্রদর্শনী খামারে নকশা করেন এবং বীজতলা ও গোবরের সার ব্যবস্থা করা ও প্রদর্শনী প্লটের মালামাল রাখার জন্য একটি ঘর করার নির্দেশনা দেন।

কৃষকরা জানায়, কৃষি অফিসার হাসান ইমাম সাহেব প্রদর্শনীর জন্য আশ^স্ত করায় তারা এবার অন্য কোনো বীজ বপন করেন নাই। কিন্তু একটি চক্র সংশ্লিষ্টদের ম্যানেজ করে অন্য স্থানে প্রদর্শনী বরাদ্দ নেওয়ার পায়তারা করছে। এই অবস্থায় অন্য কোনো স্থানে প্রদর্শনী প্লটের বরাদ্দ হলে কৃষকদের অপূরণীয় ক্ষতি হবে এবং পরবর্তীতে জমি চাষাবাদ করা সম্ভব হবে না বলে জানান এসব কৃষকরা।

উপজেলা সহকারি কৃষি অফিসার বলেন, প্রদর্শনী প্লটের জন্য ৩ টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। যেখানে ভাল হবে সেখানে করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 2
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর