• রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০১:৪০ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
ঘাটাইলের দেওপাড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হেপলুর উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ মাগুরায় করোনা প্রতিরোধে এমপি শিখরের অনুদানে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ শ্যামনগরে দুই দিনে করোনা টিকার ২য় ডোজ গ্রহণ করলেন ২১০জন শ্যামনগরে মোবাইলকোটে প্রায় আটহাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান মাদারীপুরে মেজর ও মেরিন অফিসার পরিচয় দিয়ে প্রতারনার সময় ৩জন আটক করোনায় মাদারীপুরের শিবচরে এক ব্যাক্তির মৃত্যু মণিরামপুরে করোনা নির্দেশনা না মানায় জরিমানা তাহিরপুরে বালু উত্তোলনে বাঁধা দেয়ায় বালু খেকোদের মারপিটে এক ব্যক্তি আহত ‘২০০ টাকার জন্য খুন করেছি’ ঘাতক বন্ধুর স্বীকারোক্তি সাতক্ষীরায় দিন-দুপুরে বন্ধুকে জবাই করে হত্যা

চট্টগ্রামের স‍্যুয়ারেজ প্রকল্পটি হোক সূবর্ণজয়ন্তীর উপহার

মোঃ সিরাজুল মনির, চট্টগ্রাম
প্রকাশ হয়েছে : মঙ্গলবার, ৩০ মার্চ ২০২১ | ৭:১০ pm
                             
                                 

বাংলাদেশ স্বাধীনের ৫০ বছরেও চট্টগ্রামে একটি সুষ্ঠু স্যুয়ারেজ (পয়ঃনিষ্কাশন) ব্যবস্থা গড়ে উঠল না। এই অভিযোগ থেকে মুক্তির একটি উদ্যোগ নেয়ার পর বাস্তবায়নের প্রাথমিক পর্যায়েই দুই সরকারি সংস্থার মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হওয়ায় প্রকল্পটি এখন বলা চলে অনিশ্চয়তার মুখে পড়ে গেছে।

‘চট্টগ্রাম মহানগরীর পয়ঃনিস্কাশন ব্যবস্থা স্থাপন প্রকল্পের (১ম পর্যায়) কাজ শুরু হয় ২০১৮ সালে। ঠিকাদারের সাথে চুক্তি সম্পন্ন করে তিন হাজার ৮০৮ কোটি ৫৭ লাখ টাকা ব্যয়ের প্রকল্পটি চলতি বছরের আগস্টের মধ্যে নির্মাণ কাজ শুরুর ব্যাপারে ওয়াসা কোমর বেঁধে নেমেছে। নগরীর মধ্যম হালিশহরে অধিগ্রহণকৃত প্রায় ১৬৪ একর ভূমিতে ইতিমধ্যে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হয়েছে। চট্টগ্রাম নগরীর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই প্রকল্প শুরু হওয়ার পর নগরবাসী আশায় বুক বেঁধেছিল। কিন্তু মাস্টার প্ল্যানের দোহাই দিয়ে স্যুয়ারেজ প্রকল্পের বুকের উপর দিয়ে সিডিএ একশ ফুট প্রস্থের একটি সড়ক নির্মাণের ঘোষণা দেয়ায় প্রকল্পের কাজ কার্যত বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

ওয়াসা কর্তৃপক্ষের বক্তব্য হল, প্রকল্প অনুমোদন পরবর্তী বাস্তবায়ন পর্যায়ে এসে সিডিএ’র এমন দাবি যুক্তিযুক্ত নয়। আলোচ্য ভূমিতে প্রায় ৬৫ বছর ধরে ওয়াসার মালিকানা রয়েছে। স্যানিটেশন মাস্টার প্ল্যান প্রণয়নকালীন সময়ে নগরীর ৬টি সংস্থার প্রতিনিধি নিয়ে একটি ওয়ার্কিং গ্রুপ করা হয়। ওয়ার্কিং গ্রুপে সিডিএ’র প্রতিনিধি হিসেবে প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ অন্তর্ভুক্ত ছিলেন। ওয়ার্কিং গ্রুপের সিদ্ধান্তের আলোকে স্যানিটেশন মাস্টারপ্ল্যান করা হয়। তারপরও মাস্টার প্ল্যানে এ ধরনের সড়কের সুযোগ রাখার পূর্বে সিডিএ চট্টগ্রাম ওয়াসা’র সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করলে সমাধান বের করা কঠিন হত না। মোটকথা, সরকারি দুই সংস্থার অভিযোগ পাল্টা অভিযোগের মধ্যে অতি গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পের বাস্তবায়ন এখন অনিশ্চয়তায় পড়েছে।

আনুমানিক ৬০ লাখ জনগণ অধ্যুষিত দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম নগরী চট্টগ্রামে স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা নেই, এমন কথা শুনলে নগর সচেতন মানুষেরা বিস্মিত হন। চার বছর আগে নগরীর বোট ক্লাবে চট্টগ্রামের পানি শোধনাগারের একটি প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামে স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা নেই শুনে আঁতকে উঠেছিলেন। এরপর তাঁর হস্তক্ষেপেই চট্টগ্রামে এই স্যুয়ারেজ প্রকল্পের কাজ হাতে নেয়া হয়। একটি নগরীর স্বাস্থ্যসুরক্ষার জন্য পয়ঃনিস্কাশন ব্যবস্থা থাকা অত্যাবশ্যকীয় শর্ত। অথচ এমন প্রয়োজনীয় একটি প্রকল্প এতগুলো বছর পর বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়ার পর নতুন সমস্যা দেখা দেয়ায় নগরবাসীর মনে হতাশা ভর করেছে।

অনিশ্চিত এমন পরিস্থিতিতে স্যুয়ারেজ প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ওয়াসা এবং সিডিএ কর্তৃপক্ষের সহযোগিতাসুলভ মনোভাব এই মুহুূর্তে খুবই জরুরি। যেহেতু দুটি সংস্থার সকল কাজই নগরবাসীর স্বার্থকে কেন্দ্র করে, তাই উভয় সংস্থার প্রধানগণ এ ব্যাপারে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে একটি উপায় বের করবেন। এজন্য উর্ধ্বতন মহলের দিকে না তাকিয়ে নিজেরাই সমাধানের পথ খুঁজবেন।

নগরবাসীর উন্নত জীবনমানের কথা ভেবে এবং প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সদিচ্ছার প্রতি সম্মান দিয়ে গেল ২৬ মার্চ স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে স্যুয়ারেজ ব্যবস্থার প্রতিবন্ধকতা কাটাতে উদ্যোগী হবেন, এমনটিআশা করছিলাম। এটা না হলেও খুব দ্রুত ওয়াসা- সিডিএ কর্তৃপক্ষ এ বিষয়টি নিয়ে সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর শরনাপন্ন হয়ে চট্টগ্রামবাসীর কষ্ট লাঘবে জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন এমন প্রত্যাশা করছি। উভয় কর্তৃপক্ষ যদি স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা স্থাপনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়ে সমাধানের লক্ষ্যে এগিয়ে আসেন, তাহলে স্ব স্ব সংস্থার ইমেজ বাড়বে।

স্বাধীনতার এ সূবর্ণ জয়ন্তীতে চট্টগ্রামের সাধারণ জনগণ সরকারের পক্ষ থেকে উপহার হিসাবে আশা করেন এ স‍্যুয়ারেজ প্রকল্পটি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 1
    Share


এই বিভাগের আরো খবর