• শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

চট্টগ্রাম আদালতে অর্থ আত্নসাতের কথা স্বীকার করেছেন সাহেদ

মোঃ সিরাজুল মনির, চট্টগ্রাম
প্রকাশ হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২০ | ১:৫৭ am
                             
                                 

চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানার মামলায় চার দিনের রিমান্ডে প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ স্বীকার করেছেন রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান ‘প্রতারক’ মো. সাহেদ। আজ বুধবার (১৪ অক্টোবর) বিকেলে তাকে চট্টগ্রাম আদালতে হাজির শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন মহানগর হাকিম খাইরুল আমিন ।

গত ১৩ জুলাই প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনে নগরীর ডবলমুরিং থানায় শাহেদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী মো. সাইফুদ্দিন। মামলার এজহার সুত্রে জানা যায়, রিজেন্ট গ্রুপ ও রিজেন্ট কেসিএস লিমিটেডের চেয়ারম্যান শাহেদ ২০১৭ সালের ২২ জানুয়ারি থেকে ২০১৭ সালের ৭ মার্চ পর্যন্ত সময়ের মধ্যে সাইফুদ্দীনের ভাই ব্যবসায়ী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীরের কাছ থেকে ৯১ লাখ ২৫ হাজার টাকা গ্রহন করেন এবং তা আত্মসাৎ করেন।গত ১১ অক্টোবর মো. সাহেদকে এই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডবলমুরিং থানা পুলিশ ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে বিচারক ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। সে সাথে ডবলমুরিং থানার প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের উক্ত মামলায় মো. সাহেদকে গ্রেপ্তার দেখায় আদালত। এ মামলায় এর আগের দিন মো. সাহেদকে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে আসা হয়।

ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সদীপ কুমার দাস জানান, ‘ব্যবসায়ী মো. সাইফুদ্দিনের করা প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের মামলায় মো. সাহেদকে চার দিনের রিমান্ডে এনে প্রচুর জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে মো. সাহেদ তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগগুলোর সত্যতা স্বীকার করেন। পরে আজ ১৪ অক্টোবর বিকালে তাকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে।’ সাহেদের স্বীকারোক্তি ও তদন্তের প্রাপ্ত তথ্যের ওপর ভিত্তি করে তার বিরুদ্ধে চার্জশীট দেওয়া হবে বলে জানান ওসি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 9
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর