• বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০৮:২২ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে লক্ষ্মীপুরে জেলা পরিষদের কেক কাটা ও আলোচনা সভা মণিরামপুরের সেরা ষাঁড়ের দাম ১৫ লাখ টাকা বাংলাদেশের টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা রয়েছে : প্রধানমন্ত্রী গৌরীপুর আওয়ামীলীগের ৭২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত বিভিন্ন কর্মসুচীর মধ্যে দিয়ে বাগেরহাটে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত শ্রীপুর ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে হতদরিদ্রদের মাঝে নগদ টাকা বিতরণ ফুলবাড়িয়ায় আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত মণিরামপুরে কঠোর লকডাউন: ১৩ দোকানির জরিমানা শাহজাদপুর প্রেসক্লাবের দ্বি-তল ভবন উদ্বোধন করলেন এমপি স্বপন পাঁচ হাসপাতালে দৌড়াদৌড়ি, শ্বাসকষ্টে শিক্ষকের মৃত্যু

বাগেরহাটে মৎস্য ঘের থেকে বিরল প্রজাতির ঈগল উদ্ধার

আবু হানিফ, বাগেরহাট
প্রকাশ হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ৩০ জুলাই ২০২০ | ৮:০৬ pm
                             
                                 

বাগেরহাটে মৎস্য ঘের থেকে একটি বিরল প্রজাতির ঈগল উদ্ধার করা হয়েছে।বৃহস্পতিবার দুপুরে বাগেরহাট শহরের মালোপাড়া এলাকা থেকে ঈগলটিকে খুলনা বন্যপ্রানী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষন বিভাগের কর্মকর্তাদের কাছে ঈগলটি হস্তান্তর করা হয়েছে।
এর আগে মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) বাগেরহাট সদর উপজেলার বারুইপাড়া ইউনিয়নের কার্ত্তিকদিয়া গ্রামের একটি মৎস্য ঘেরের জালে আটকে পড়লে ঈগলটিকে ধরে ফেলে স্থানীয়রা।খবর পেয়ে কমিউনিস্ট পার্টির নেতা ফররুখ হাসান জুয়েল ঈগলটিকে বাগেরহাট শহরে তার নিজ বাড়িতে এনে রাখেন।পরবর্তীতে বন্যপ্রানী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষন বিভাগের সাথে যোগাযোগ করে তাদের কাছে ঈগলটিকে হস্তান্তর করেন তিনি।ঈগলটিকে খুলনা বন্যপ্রানী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষন বিভাগে নিয়ে প্রথমে চিকিৎসা করানো হবে।পরবর্তীতে সম্পূর্ন সুস্থ্য হলে প্রকৃতিতে অবমুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন খুলনা বন্যপ্রানী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষন বিভাগের ওয়াইল্ড লাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল ইউনিটের জুনিয়র ওয়াইল্ড লাইফ স্কাউট মোঃ শাহিন।
শাহিন বলেন,ফররুখ ভাইয়ের মাধ্যমে খবর পেয়ে আমরা ঈগলটিকে নিয়ে যাচ্ছি।খুলনায় নিয়ে প্রাণি বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে চিকিৎসা করানো হবে।পরবর্তীতে সুস্থ্য হলে এটিকে প্রকৃতিতে অবমুক্ত করা হবে।
কমিউনিস্ট পার্টির নেতা ফররুখ হাসান জুয়েল বলেন,কাফুরপুরা গ্রামের একজনের মাধ্যমে জানতে ওই এলাকায় একটি ঈগল ধরা পড়েছে।খোজ খবর নিয়ে যে বাড়িতে রাখা হয়েছিল তাদের কাছ থেকে আমি ঈগলটিকে নিয়ে আসি।সামাজিক বন বিভাগের সাথে যোগাযোগ করলে তারা খুলনা বন্যপ্রানী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষন বিভাগের নাম্বার দেয়।আমি মুঠোফোনে তাদের সাথে যোগাযোগ করলে তারা এসে ঈগলটিকে নিয়ে যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগের আরো খবর