• শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৫০ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
সুনামগঞ্জে নদীতে ডুবে নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার ঘোড়াঘাটে প্রতিবন্ধী ভাতার চেক আটক রেখে টাকা দাবীর অভিযোগ ইসলামপুরে গ্রামীন জনপদে শহরের ছোঁয়া সন্ধ্যা নামতেই মেঠপথ আলোকিত মাদারীপুরে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মাড়া গেলেন পুলিশ সদস্য শাল্লায় সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনার আরো এক আসামী গ্রেফতার মনোহরদীতে দুস্থদের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরন করেন এড. হারুনুর রশিদ বকশীগঞ্জে মাহে রমজান উপলক্ষে ব্যারিস্টার সামির ছাত্তারের উদ্যোগে নগদ অর্থ বিতরণ ইসলামপুরে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ আলফাডাঙ্গায় পুকুরে ডুবে পাঁচ বছরের শিশুর মৃত্যু সিরাজদিখানে লকডাউনে দোকান খোলায় ১৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

মাদারীপুরে জেলা কারাগারে হাজতীর মৃত্যু

ম.ম.হারুন অর রশিদ, মাদারীপুর
প্রকাশ হয়েছে : সোমবার, ৫ এপ্রিল ২০২১ | ৮:০৯ pm
                             
                                 

মাদারীপুরে জেলা কারাগারে এক হাজতীর মৃত্যু হয়েছে। রোববার রাত ৩টার দিকে আয়নাল শেখ (২৫) নামে ওই হাজতীর মৃত্যু হয়। নিহত আয়নাল গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলার দক্ষিন গঙ্গারামপুর গ্রামের নুরুল শেখের ছেলে।
মাদারীপুর জেলা কারাগারের জেলার শঙ্কর কুমার মজুমদার জানান, ২০২০ সালের ১৪ ডিসেম্বর মাদারীপুরের রাজৈর থানার একটি চুরি মামলা দায়ের হয়। পরে ২০ ডিসেম্বর সেই মামলায় গ্রেফতার হয় আয়নাল শেখ। তাকে মাদারীপুর আদালতে তোলা হলে আদালতের বিচারক আয়নালকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরপর পরিবারের পক্ষ থেকে তার কোন জামিনের আবেদন না করা হলে আয়নাল কারাগারেই ছিল। কিন্তু রোববার রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে কারাগার কর্তৃপক্ষ তাকে চিকিৎসার জন্য নিজস্ব পরিবহনে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আয়নালকে মৃত ঘোষণা করেন। সোমবার সকালে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু জাহের নিহতের সুরাতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করেন। ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।
মাদারীপুর জেলা কারাগারের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. অখিল সরকার জানান, ব্রেইন স্টক হয়ে মারা গেছে আয়নাল। ঘুমে থাকা অবস্থায় এটা হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। বাকিটা ময়না তদন্ত রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরে বলা যাবে।
মাদারীপুরের রাজৈর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মো. সাদী জানান, রাজৈর উপজেলার ইশিবপুরের আবুল হোসেনের নিজ বাড়ি থেকে ৩টি গরু চুরি হয়। পরে তিনি রাজৈর থানায় একটি চুরি মামলা দায়ের করেন। মামলায় বেশ কয়েকজনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়। রাজৈর থানার এসআই মাহাতাব হোসেন মামলার তদন্তের দায়িত্ব পায়। পরে রাজৈর থানা এলাকা থেকে পুলিশ আয়নালকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 1
    Share


এই বিভাগের আরো খবর