• রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৫৫ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম

যাত্রীদের দুর্ভোগ

মাধবপুরে ঐতিহাসিক তেলিয়াপাড়া রেলওয়ে ষ্টেশনটি আজও তালাবন্ধ

পিন্টু অধিকারী, মাধবপুর (হবিগঞ্জ)
প্রকাশ হয়েছে : মঙ্গলবার, ৬ এপ্রিল ২০২১ | ৫:২৯ pm
                             
                                 

হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার অন্তর্গত অবহেলিত একটি রেলওয়ে ষ্টেশনের নাম “তেলিয়াপাড়া”। দীর্ঘদিন থেকে তেলিয়াপাড়া রেল স্টেশন বন্ধ থাকার ফলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে যাত্রীদের। স্টেশন ঘরটিও তালাবন্ধ। এই স্টেশনটির কোন কার্যক্রম নেই বহুদিন ধরে শূন্য স্থানে দাড়িয়ে আছে তেলিয়াপাড়া রেল স্টেশনটি। সামাজিক যোগাযোগে ও মিডিয়া মাধ্যমে বেশ কয়েকবার এই রেলওয়ে ষ্টেশনের ব্যাপারে লেখালেখি করা হলেও কোন কাজ হয় নাই। কিন্তু বাংলাদেশ রেলওয়েসহ কর্মকর্তাদের সুনজরে আনতে পেরেছি বলে আমার মনে হয় না। কারন বর্তমানে উক্ত রেলওয়ে ষ্টেশনের মাষ্টারের কামরার ভাড়া চলছে, কামরার সামনে কাপড়, চা ও কাঠের দোকান খুলেছে। সাবেক সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী মরহুম এনামূল হক মোস্তফা শহীদ এর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন না হওয়ায় সিলেট-আখাউড়া রেলওয়ে সেকশনের তেলিয়াপাড়া রেলওয়ে ষ্টেশন ও মাষ্টারের ঘরটি আজ দীর্ঘদিন ধরে জরাজীর্ণ অবস্থায় বন্ধ রয়েছে ।ফলে শতশত যাত্রীকে চরম দূর্ভোগের মধ্যে দিয়ে এ ষ্টেশন থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করতে হচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে এ ষ্টেশনে কোন মাষ্টার বা কর্মচারী না থাকায় ষ্টেশন ঘরটি তালা বন্ধ করে রাখা হয়েছে। ট্রেনের সময় সূচি বা রক্ষনা বেক্ষনের অভাবে ষ্টেশনের মালামাল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন সময় মন্ত্রী,এমপিরা এ ষ্টেশনকে বি-ক্লাসে উন্নীত করার প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবায়ন করেনি কেউই। প্রায় একশত ত্রিশ বছর পূর্বে এ ষ্টেশনটি তৈরী করা হলেও আধূনিকতার ছোয়া আজও লাগেনি। অত্র উপজেলার ২৭ টি গ্রামের স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীসহ তেলিয়াপাড়া এবং সুরমা চা বাগানসহ ২২টি চা-বাগানের শতশত যাত্রীরা এই ষ্টেশন দিয়েই সিলেট -ঢাকা-চট্রগ্রাম রেলপথে যাতায়াত করে। ষ্টেশনটিতে যাত্রীদের জন্য কোন সুযোগ সুবিধা নেই। এমন কি এই ষ্টেশনটিতে একজন বুকিং মাষ্টারও নেই, গেইটম্যান বর্তমানে মাষ্টারের কাজ করে।

বাবুল হোসেন খান, ইউ/পি চেয়ারম্যান বলেন : যেখানে জড়িয়ে আছে ‘৭১ এর রণাঙ্গনের ইতিহাস এবং এখানে জড়িয়ে আছে আগুনে পুরানো, বুলেটের আঘাতে ক্ষত- বিক্ষত লাশের চিন্হ। ২০১১ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তৎকালীন মাননীয় সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী এনামূল হক মোস্তফা শহীদ তেলিয়াপাড়া ষ্টেশন বাজারে স্হানীয় আওয়ামীলীগের এক মহা সমাবেশে জনতার উদ্দেশ্যে বলেছিলেন অচিরেই তেলিয়াপাড়া রেল ষ্টেশনটি বি-ক্লাসে রুপান্তর করা হবে কিন্তু আজও হয় নি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী জনাব আলহাজ্ব মোঃ মাহবুব আলী এম,পি মহোদয় ও মাননীয় রেলমন্ত্রী মহোদয় নিকট আবেদন তেলিয়াপাড়া রেলওয়ে স্টেশনটি পুনঃরায় চালু করার জন্য জোরদাবী জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 1
    Share


এই বিভাগের আরো খবর