• সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ১০:৪৭ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
সাতক্ষীরায় জুলাই মাসে করোনায় ১৫, উপসর্গে ২০৫ জনের মৃত্যু গোবিন্দগঞ্জ ছিনতাইকৃত মহিষ আক্কেলপুরে উদ্ধার রবিউল এবার পেল সুচিকিৎসার ব্যবস্থা, সমাজসেবা থেকে পেল আর্থিক সহায়তা বোয়ালমারীতে জেলা পরিষদ বানিজ্যিক ভবনের কক্ষ থেকে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার সুন্দরগঞ্জে টিকা সম্প্রসারণে অবহিতকরণ সভা মাধবপুরে কঠোর নজরদারিতে এসিল্যান্ড অভিযানে ১৩টি মামলায় জরিমানা সেই পরিত্যক্ত ঘরেই মারা গেলেন জনপ্রিয় শিক্ষক যত্রতত্র ফেলা হচ্ছে বর্জ্য, হুমকির মুখে পরিবেশ বকশীগঞ্জে ৩৩৩ ফোন ও খুদে বার্তা পাঠিয়ে খাদ্য সহায়তা পেয়েছেন ১৪০০ পরিবার! চাঁদপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য হলেন সম্রাট গাজী

কাঁচা রাস্তায় ১৫ হাজার মানুষের চলাচলে চরম দূর্ভোগ

শাহজাদপুরে গ্রামবাসীর নিজস্ব দেড় কোটি টাকায় দুই কিলো রাস্তায় মাটি ভরাট

মাসুদ মোশাররফ, শাহজাদপুর(সিরাজগঞ্জ)
প্রকাশ হয়েছে : সোমবার, ২১ জুন ২০২১ | ৭:০৯ pm
                             
                                 

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের নন্দলালপুর গ্রাম। শহর থেকে মাত্র ৬ কিলোমিটার পূর্বে গ্রামটির অবস্থান। উপজেলার অন্যতম প্রাচীন এবং বৃহত্তম এই গ্রামটিতে প্রায় ২০ হাজার মানুষের বসবাস। সেইসাথে গ্রামে রয়েছে ২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১টি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ১টি আলিয়া মাদ্রাসা, ১টি হাফিজিয়া মাদ্রাসা, ১০টি মসজিদ ও ২ টি বাজার। এতগুলো প্রতিষ্ঠান এবং বিশাল জনগোষ্ঠীর চলাচলের জন্য একটিমাত্র রাস্তা থাকলেও তা চলাচলের অযোগ্য। স্বাধীনতার ৫ দশক পূর্ণ হলেও প্রাচীণ এই গ্রামটিতে সরকারি ভাবে কোন রাস্তা নির্মাণ হয়নি। স্বাধীনতার পূর্ব থেকেই মানুষ পায়ে হেটে এবং নৌকায় যাতায়াত করতো। মাত্র দুই বছর আগে গ্রামের মানুষ সম্মিলিত ভাবে নিজেদের অর্থ দিয়ে প্রায় দেড় কোটি টাকা খরচ করে মাটি দিয়ে রাস্তা ভরাট করা হয়েছে। কিন্তু সেই রাস্তাতেও বৃষ্টির পানির ছোয়ায় ভয়াবহ কাঁদার সৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে যানবাহন তো দূরের কথা পায়ে হেঁটে চলাচল করাও সম্ভব হচ্ছে না। ফলে এলাকাবাসীকে পড়তে হয়েছে চরম ভোগান্তিতে। এলাকার বাসিন্দা মোঃ রফিকুল ইসলাম রওশন, বদিউজ্জামান বদি, আলহাজ্ব শমসের আলী মাস্টার জানান, রাস্তাটি বড় মহারাজপুর কবরস্থান হতে দক্ষিণ দিকে প্রায় ১ কিলোমিটার পাকা সড়কের পর থেকে আরও ২ কিলোমিটার কাচা রাস্তা রয়েছে গ্রামের শেষ প্রান্ত পর্যন্ত। সেটাও গ্রামের মানুষ নিজেদের টাকা দিয়ে মাটি ভরাট করেছে। এখন এটি যদি কংক্রিটের রাস্তা করা হয় তবেই জনগণের দীর্ঘ কয়েক দশকের কষ্ট লাঘব হবে।
এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা প্রকৌশলী আহম্মেদ রফিক জানান, নন্দলালপুর পাকার মাথা থেকে ১ কিলোমিটার রাস্তার টেন্ডার হয়েছে। যে কোন সময় ওয়ার্ক অর্ডার হবে। পরবর্তীতে বাকী অংশের কাজ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগের আরো খবর