• মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:০৯ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

কালভার্টের মুখে বাঁধ নির্মাণ করে ফিসারি ও ঘর নির্মাণ: ভ্রাম্যমান আদালতের উচ্ছেদ ও জরিমানা

সাইফুল ইসলাম তরফদার, ফুলবাড়িয়া (ময়মনসিংহ)
প্রকাশ হয়েছে : সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০ | ১০:০১ pm
                             
                                 

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার কুশমাইল ইউনিয়নের টেকিপাড়া (টেংগরপাড়) হুবিদ্ধা বিলে কালভার্টের মুখে বাঁধ নির্মাণ করে ফিসারী দেওয়ায় জলাবদ্ধতা ও কালভার্টের মুখে অবৈধ ঘর উচ্ছেদ করে দায়ী ফিসারির মালিক মোশারফ হোসেন কে ২০হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ.টি.এম আরিফ। গতকাল সোমবার দুপুরে উপজেলার কুশমাইল টেকিপাড়া (টেংগরপাড়) হুবিদ্ধা বিল পাড়ে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়।

জানা যায়, স্থানীয় মৃত হাজী জয়নাল আবেদীন খান এর পুত্র মো: মোশারফ হোসেন, বিল্লাল হোসেন, গোলাম ছামদানী ও একই উপজেলার কালাদহ গ্রামের মো: মফিজ উদ্দিন এর পুত্র আশিকুর রহমান মিলে মাছ চাষের জন্য ফিসারি করে পানি নিস্কাসনে বাঁধা, কালভার্টের মুখে অবৈধ ঘরসহ ফিসারি/পুকুর নির্মাণ করে কৃত্রিম জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করায় জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা তলিয়ে দেওয়া এবং প্রায় ১শ একর জমির আমন ফসল অনাবাদী রাখায় তা ৩দিনের মধ্যে অপসারণ ও জনগণ চলাচলের রাস্তার ক্ষতিসাধন হতে বিরত থাকার নির্দেশ প্রদান করে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার মোসা: নিকহাত আরা। গত ৪ আগস্ট এ মর্মে একটি আদেশ প্রদান করেন বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট। কিন্তু সেই আদেশ অমান্য করায় সোমবার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ.টি.এম আরিফ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অবৈধ ঘর উচ্ছেদ, কালভার্টের মুখ খুলে দেওয়া সহ দায়ী মোশারফ হোসেন কে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। দন্ডবিধির ১৮৬০ এর ২৯১ ধারা মোতাবেক এই অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। আর এ অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়েছেন ভোক্তেভোগি জনগণ।

এ সময় ফুলবাড়িয়া উপজেলা নির্বাহি অফিসার আশরাফুল ছিদ্দিক, সহকারী কমিশনার (ভূমি) দিলরুবা ইসলাম, ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ শামছুল হক, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবুর রহমান সহ ভোক্তভূগীগণ উপস্থিত ছিলেন। পরে আদালতের নির্দেশে কালভার্টের মুখে নির্মিত ঘর উচ্ছেদ ও বাঁধ কেঁটে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা করা হয়।
অপরদিকে একই দিন বিকেলে রোডের উপর সিএনজি ষ্টেশন স্থাপন করে যানজট তৈরি করে করোনা সংক্রমনের সম্ভাবনা সৃষ্টি করার অপরাধে একই আদালত স্টেশন মাস্টার মোঃ আঃ বারেক কে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 43
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর