• বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৬:৩৭ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

ঘোড়াঘাটে অবৈধ ট্রাক্টর চলাচলে গ্রামীণ রাস্তার বেহাল দশা

মোঃ সুলতান কবির, ঘোড়াঘাট, দিনাজপুর
প্রকাশ হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১ | ৬:১৪ pm
                             
                                 

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে গ্রামীণ রাস্তা-ঘাট গুলো যেন নিষিদ্ধ ট্রাক্টর ও ট্রলির দখলে! উপজেলার সর্বস্তরের গ্রামীণ সড়কে এসব যানগুলো সারাদিনই বেপরোয়া ভাবে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। এতে প্রতিনিয়ত ধুলা-বালি সহ বাড়ছে রোগ জীবানু, ঘটছে শব্দ দূষণ। এছাড়াও যন্ত্রদানব এ যানগুলোর বেপরোয়া চলাচলে একদিকে যেমন নস্ট হচ্ছে কাঁচা-পাকা সড়ক অন্যদিকে প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোট- বড় দুর্ঘটনা। নষ্ট হচ্ছে গ্রামীণ এলাকার ব্রীজ ও কালভার্ট। অবৈধ এ যানগুলোর প্রতি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজর নেই বললেই চলে!
সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার ১টি পৌরসভা সহ ৪টি ইউনিয়নের পাড়া-মহল্লা ও গ্রামীণ এলাকার সংযুক্ত সড়ক গুলোতেও দিন-রাত চষে বেড়াচ্ছে শতাধিক অবৈধ ট্রাক্টর ও ট্রলি। বিকট শব্দে সাদা পাউডারের মত ধুলা উড়িয়ে ট্রাক্টরগুলো দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। কখনো কখনো কৃষি জমির উর্বর টপ সয়েল কেটে ইট ভাটায় সরবরাহ ও পুকুর-দীঘি নালা ভরাট কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। কখনো আবার ইট, পাথর, বালু, বাসা-বাড়ির ফার্নিচার বা গাছের গুড়ি নিয়ে ছুটছে। এসব ট্রাক্টর ও ট্রলির বেপরোয়া চলাচলে রাস্তা-ঘাট ভেঙে যেন ধুলার চর পড়েছে। আবার অনেক জায়গায় ব্রীজ ও কালভার্টে ফাটল ধরেছে।
স্থানীয় একাধিক বাসিন্দা জানান, এসব গাড়ি চলাচলের সময় আশেপাশের এলাকা কুয়াশার মতো অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে থাকে। এরকম অন্ধকারাচ্ছন্ন ধূলোর মধ্যে দিয়েই ছোট ছেলে-মেয়ে নিয়ে আমাদের যাতায়াত করতে হয়। বাড়ির পাশ দিয়ে বিকট শব্দ করে দিন রাত ট্রাক্টরগুলো চলাচল করায় ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরা ঠিকমতো ঘুমাতে পারে না, আতঙ্কিত হয়ে পড়ে!
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, শুধুমাত্র চাষাবাদের জন্য এসব আমদানি করা হলেও এখন অবৈধভাবে পণ্য পরিবহন কাজে এগুলো ব্যবহার করা হচ্ছে। এসব যানবাহনে নেই কোন বৈধ কাগজপত্র ও রোড পারমিট । তাছাড়া ড্রাইভিং লাইসেন্সের প্রয়োজন না হওয়ায় এসব যানবাহন চলাচলের কাজে নিয়োজিত রয়েছে ১৪-১৫ বছর সহ অপ্রাপ্ত বয়সের শিশু-কিশোর। ফলে এসব অবাধে চলাচলের সুযোগ পাওয়ায় প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোট-বড় দূর্ঘটনা।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: নুর নেওয়াজ আহমেদ জানান, শিশু সহ সব বয়সের মানুষ এসব সৃষ্ট ধূলায় সর্দি কাশি ও শ্বাসকষ্ট সহ নানা রোগ আক্রান্ত হতে পারে। এছাড়া অধিক শব্দ দূষণের ফলে অনেকে বধির হয়ে যেতে পারে।
এ বিষয়ে কথা হলে ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাফিউল আলম জানান, এসব অবৈধ ট্রাক্টর ও ট্রলি চলাচলের বিষয়ে আগামী সমন্বয় সভায় সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 3
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর