• বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:২৫ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

রামগতির মেয়র মেজুর বিরুদ্ধে অনৈতিক সুবিধা না পাওয়াদের ষড়যন্ত্র

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ হয়েছে : বুধবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১০:৩৭ am
                             
                                 

বিভিন্ন ধরনের অনৈতিক সুবিধা ও আইন বহিভূত টেন্ডারসহ যাবতীয় কাজ করতে না পারায় লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি পৌরসভার মেয়র মেজবাহ উদ্দিন মেজুর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে কতিপয় দুষ্কৃতিকারীরা। সম্প্রতি বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ পরিবেশন করে তার সুনাম ক্ষুন্ন করে রামগতি পৌরসভার জনগণের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি করেছে। মেয়রের বিরুদ্ধে প্রকাশিত বিভিন্ন সংবাদের তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেছেন পৌরসভার বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বিশিষ্টজনরা।
পৌর নাগরিকরা জানান, মেজবাহ উদ্দিন মেজু লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক। আওয়ামী পরিবারে বেড়ে উঠা তৃণমূলের এই রাজনৈতিক নেতার বিরুদ্ধে কখনো কোন অভিযোগ কিংবা কালিমা না থাকায় বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত করেছে পৌরবাসী। খ শ্রেণীর পৌরসভা হওয়া স্বতেও বেশি বরাদ্ধ ও রাজস্ব না থাকার পরেও মেয়র পৌরসভার উন্নয়নের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করে আসছে। স্বচ্ছতার সাথে দায়িত্ব পালন করে পৌরবাসীর কল্যানে কাজ করে যাচ্ছেন। রাজস্ব দিয়ে পৌরসভার মানুষের জন্য কাজ করে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতনও ঠিকমত দিতে পারছেননা।
মোস্তাফিজুর রহমান নামে একজন শিক্ষক বলেন, আমাদের এই পৌরসভাটি খ গ্রেডের একটি পৌরসভা। এখানে আমার জানা মতে সরকারি বরাদ্ধ কম আসে। তাছাড়া পৌরসভার আয় না থাকায় উন্নয়নমূলক কাজ করা যাচ্ছেনা। তারপরও মেয়র সাহেব এই পৌরসভাকে আস্তে আস্তে উন্নত শ্রেণীতে রুপান্তর করতে দিন রাত কাজ করে যাচ্ছেন।
আব্দুল কাইয়ুম নামে এক সমাজসেবক বলেন, বর্তমান সরকারের সময়ে আমাদের পৌর মেয়র সর্বাত্মক চেষ্টা করে বেশ কয়েকটি প্রজেক্ট এনেছেন।

পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, মেয়র মেজুর দীর্ঘ প্রচেষ্টায় রামগতি পৌরসভা পাইলট প্রকপ্লের অন্তভুক্ত হয়েছে । সারা দেশে ১০টি পৌরসভার মর্ধ্যে রামগতি পৌরসভা ৬ নম্বার অবস্থানে রহেছে। ইতিমর্ধ্যে গুরত্বপূর্ন নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকপ্লের অাওতায় ৮ কোটি টাকার প্রকল্পের দরপত্র অাহবান করা হয়েছে এবং উক্ত প্রকপ্লের কাজ চলমান রহেছে। বতর্মানে World Bank এর অর্থায়নে ৬০ কোটি টাকার Water supply প্রকপ্লের কাজের দরপত্র অাহবান করা হয়েছে। এই ছাড়া MGSP প্রকপ্লের অাওতায় ১০৪ কোটি টাকার প্রকপ্ল দাখিল করা হয়েছে।এবং প্রকপ্লের অনুকুলে pd নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। যার কাযর্ক্রম শিগ্রহী শুরু হবে তাছাড়া ও রামগতি পৌরসভার অনুকুলে জলবায়ু পরিবর্তন টাষ্ট ফান্ডের অাওতায় ৬ কোটি টাকার প্রকপ্ল দাখিল করা হয়েছে ইতিমধ্যে 2 কোটি টাকার প্রকপ্লের অনুমোদন পাওয়া গিয়াছে। তার একান্ত প্রচেষ্টায় রামগতি পৌরসভা গ শ্রেনী হইতে খ শ্রেনীতে উন্নীত হয়েছে। তিনি আমাদের পৌরসভাকে উন্নত করতে স্বচ্ছতার সাথে কাজ করছেন। কোন কাজে অনিয়ম পেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।

পৌরসভার নাম প্রকাশে এক কাউন্সিলর বলেন, গত ৫বছর পূর্বের পৌরসভা আর এখনকার পৌরসভার মধ্যে রাত দিন পার্থক্য আছে। এই মেয়রের বুদ্ধিমত্তা ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় পৌরসভার বিভিন্ন স্তরের উন্নয়নমূলক কাজ, প্রশাসনিক ব্যবস্থা, নাগরিক সেবা প্রদান, নাগরিক সন্তুষ্টি সুচারূরুপে পরিচালিত হচ্ছে। মানুষজন এখন সন্তুুষ্ট। কতিপয় মাদকসেবী ও কুৎসিত চরিত্রের লোকজন তার এইসব ভালো কাজে ইস্বানিত হয়ে অপ্রচার চালিয়েছে।

লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট রাসেল মাহমুদ মান্না বলেন, লক্ষ্মীপুর জেলার মধ্যে মেজবাহ উদ্দিন মেজু মেয়র অত্যন্ত ভালো ও সৎ মানুষ। পৌরসভায় অনিয়ম বা অর্থ আত্মসাতের কোন খবর জেলাবাসী বিশ্বাস করবেনা। তিনি রাজনীতির পাশাপাশি রামগতি পৌরসভার মানুষের জন্য ভাবেন। প্রায় সময় ঢাকা বা লক্ষ্মীপুরে এলাকার মানুষের জন্য প্রজেক্ট বা উন্নয়নমূলক কাজের জন্য তদবীর করেন। তার বিরুদ্ধে যে কোন মিথ্যা সংবাদের নিন্দা জ্ঞাপন করছি।

পৌর মেয়র মেজবাহ উদ্দিন মেজু বলেন, এই পৌরসভার প্রতিটি কাজ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের আইনে পরিচালিত হচ্ছে। কোন ধরনের অনিয়ম করার সুযোগই নেই। আমি মেয়র হওয়ার পর বিভিন্ন মাদকসেবী ও অনৈতিক সুবিধা আদায়কারীদের প্রশ্রয় না দেওয়ায় তারা আমার বিরুদ্ধে তথা রামগতি পৌরসভার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে।
সম্প্রতি প্রকাশিত একটি মিথ্যা সংবাদের ভিত্তিতে সাংবাদিকরা সরেজমিনে অনুসন্ধানে গেলে রামগতি পৌরসভার মেয়র মেজুর বিরুদ্ধে আনিত প্রতিটি অভিযোগ মিথ্যা ও বানোয়াট হিসেবে প্রতিয়মান হয়। এর কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি।
অনুসন্ধানে আরো পাওয়া যায়, পৌরসভার উন্নয়ন ও পৌরবাসীর কল্যানে ব্যাপক প্রদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা এছাড়াও পৌরসভার আয়, বরাদ্ধের তুলনায় স্বচ্ছতার সাথে কাজ করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 1
    Share


এই বিভাগের আরো খবর