• সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:৫৬ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
আমেরিকা ও সুইডেনে থেকেও রামগঞ্জে দুই মাদ্রাসা শিক্ষক স্বপদে বহাল বিতর্কিত মামুন-খোকন নয়া সিন্ডিকেট ॥ হাত তোলা পদ্ধতিতে এজেন্ডা বাস্তবায়ন শিবগঞ্জে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত শিবগঞ্জে শিশু বিবাহ প্রতিরোধে এ্যাডভোকেসি সভা প্রেম প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সাভারে স্কুলছাত্রীকে হত্যার অভিযোগ গৌরীপুর টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আলী আহাম্মদ মোল্লা বরখাস্ত ক্কেলপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে বৃদ্ধের আত্নহত্যা চাচার বিরুদ্ধে কলেজ ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ সকল ধর্মই মানব সেবায় উদ্বুদ্ধ করে এবং মনুষ্যত্বের বিকাশ ঘটায়: -মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি গৌরীপুরে মাদক ব্যবসায়ী এরশাদ গ্রেফতার

আলফাডাঙ্গায় প্রেমিকার বাড়িতে প্রেমিকের আত্মহত্যা

আল মামুন রনী, বোয়ালমারী (ফরিদপুর)
প্রকাশ হয়েছে : শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০ | ৮:৩০ pm
                             
                                 

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার বানা ইউনিয়নের কঠুরাকান্দি গ্রামে প্রেমিকা বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় আশিক রানা (১৯) নামে এক কলেজ ছাত্র প্রেমিকার বাড়িতে আত্মহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। শনিবার ১৫আগস্ট সকাল ১০টায় শরীফ হারুণ-অর-রশীদের দোতলা বাড়ির একটি রুম থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে আলফাডাঙ্গা থানা পুলিশ। আশিক রানা সৌদি প্রবাসী আলমগীর শেখের ছেলে এবং ফরিদপুর মুসলিম মিশন কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী। তার হারুন-অর-রশীদের ৮ম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে মারিয়ার সাথে প্রেম ছিল বলে এলাকাবাসী জানায়। অপরদিকে আশিকের পরিবারের দাবি তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

শরীফ হারুন-অর-রশীদ হত্যার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমার মেয়ে মারিয়ার সাথে আশিক ফোনে আগেপরে কথা বলতো বলে জেনেছি। ওইদিন আমার স্ত্রী বাসায় না থাকার সুযোগে আশিক আমার মেয়ের সাথে দেখা করতে আমার বাড়িতে যায়। কথাবার্তার একপর্যায়ে আশিক মারিয়াকে গোপনে বিয়ের কথা বলে মাগুরা যাওয়ার প্রস্তাব দেয়। মারিয়া গোপনে বিয়ে ও মাগুরা যেতে অস্বীকার করলে আশিক আত্মহত্যার হুমকি দেয়। একথা শুনে মারিয়া নিজের রুম থেকে অন্য রুমে চলে যায়। পরবর্তীতে ভেতর থেকে রুমের দরজা বন্ধ করে গলায় গামছা বেধে আত্মহত্যা করে আশিক।

নিহত আশিক রানার চাচা আলফাডাঙ্গা উপজেলার বানা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের জানান, রাতে খবর পেয়ে হারুন শরীফের বাড়িতে গিয়ে দোতলা বিল্ডিংয়ের পুকুর পাড়ের একটি নির্জন রুমে আমার ভাতিজার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পাই। হারুন শরীফ পূর্বশত্রুতার জের ধরে আমার ভাতিজা আশিক রানাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে লাশটি ঝুলিয়ে রাখে।

আলফাডাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ রেজাউল করিম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করেছি এবং সুরতহাল রির্পোট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুরে পাঠানো হয়েছে। রির্পোট পাওয়ার পর জানা যাবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 10
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর