• বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০২:৫৫ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

কালকিনিতে হাতুড়ী দিয়ে পিটিয়ে যুবকের দুই পা ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগ

ম.ম.হারুন অর রশিদ, মাদারীপুর
প্রকাশ হয়েছে : রবিবার, ১ নভেম্বর ২০২০ | ৪:৫৯ pm
                             
                                 

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মাদারীপুরের কালকিনিতে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে হাতুড়ীদিয়ে পিটিয়ে মোঃ সাহাবুদ্দিন ফকিরÑ(৪০) নামের এক যুবকের দুই পা ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পরে স্থানীয় লোকজন পুলিশের সহযাগীতায় আহত যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে ভর্তি করেন। পরে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে রেফার্ট করেন।

আজ রোববার সকালে এ হামলার ঘটনা নিশ্চিত করেছেন ভূক্তভোগী পরিবার। এলাকা, ভুক্তভোগী পরিবার ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাঁশগাড়ী এলাকার মধ্যেরচর গ্রামের মোঃ সামসুল হক ফকিরের অসহায় কৃষক ছেলে সাহাবুদ্দিন ফকির ওই গ্রামে আশ্রায়ন প্রকল্পের জন্য বেশ কিছু লোকজনের কাছ থেকে তাদের জমির কাগজপত্র এনে ইউনিয়ন পরিষদে জমা দেন। এ বিষয় নিয়ে একই এলাকার আবু কবিরাজের সঙ্গে বিরোধ চলে আসছে।

শনিবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে সাহাবুদ্দিন ফকির খাঁসেরহাট বাজার থেকে তার বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে তার গ্রামের লাল মিয়া ফকিরের বাড়ির সামনে গেলে একই এলাকার ফারুক মোল্লা ও লোকমান চৌধুরীর হুকুমে তার গতি রোধ করে স্থানীয় প্রভাবশালী আবু কবিরাজ, মোঃ হেলাল, জুনি ও সুকুরসহ ৫/৭জন যুবক। এসময় তারা সবাই মিলে হাতুড়ী দিয়ে পিটিয়ে তার দুই পা ভেঙ্গে দেয়। পরে স্থানীয় লোকজন খাসেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশের সহযাগীতায় আহত সাহাবুদ্দিনকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে ভর্তি করেন। পরে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে রেফার্ট করেন।

আহত যুবক সাহাবুদ্দিন ফকির বলেন, আমাকে স্থানীয় প্রভাবশালী ফারুক মোল্লা ও লোকমান চৌধুরীর হুকুমে আবু কবিরাজ, মোঃ হেলাল, জুনি ও সুকুরসহ ৫/৭জন যুবক মিলে হাতুড়ীদিয়ে পিটিয়ে আমার দুই পা ভেঙ্গে দিয়েছে। আমি তাদের বিচার চাই। আহত যুবকের ভাই রোকন ফকির বলেন, আমার ভাইকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালিয়েছে যারা তাদের নামে আমরা মামলা করবো।

অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাদেরকে পাওয়া যায়নি। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাঃ সজিব ভক্ত বলেন, আহত সাহাবুদ্দিনের অবস্থা তেমন একটা ভালো না থাকায় তাকে ঢাকা রেফার্ট করা হয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলার খাঁসেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই মোঃ আল আমিন বলেন, হামলার ঘটনা যানতে পেরে আমরা আহত যুবক সাহাবুদ্দিন ফকিরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 82
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর