• রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১২:৫০ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
আলফাডাঙ্গায় স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে মামলা, গ্রেপ্তার ১ ইবি শাখা’র আলোর দিশা বাংলাদেশ পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা স্বচ্ছতা গ্রুপের পক্ষ থেকে বেকার যুবককে চটপটি বিক্রির ভ্যানগাড়ি প্রদান লক্ষ্মীপুরে সেলাই মেশিন ও রিকশা বিতরণ মতলবে পুলিশ ও জনসাধারণের মাঝে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ বিশ্বম্ভরপুরে মাঠ দিবস ও রিভিউ ডিসকাশন অনুষ্ঠিত শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং সেন্টারের’ নির্মাণকাজ উদ্বোধন করলেন প্রতিমন্ত্রী পলক শাহজাদপরে স্বাস্থ্য সহকারীদৈর কর্ম বিরতি বকশীগঞ্জে অনির্দিষ্টকালের কর্ম বিরতিতে স্বাস্থ্য সহকারীরা কর্ণফুলী নদীর নাব‍্যতা বাড়াতে সমীক্ষা পরিচালনার উদ্যোগ

ধর্ষণের শিকার কিশোরী ৭ মাসের অন্তঃসত্তা ॥ থানায় মামলা

ওবায়দুর রহমান, গৌরিপুর, ময়মনসিংহ
প্রকাশ হয়েছে : শনিবার, ১৪ নভেম্বর ২০২০ | ১১:৩৭ pm
                             
                                 

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে রাসেল মিয়া (২৬) নামের এক বখাটের ধর্ষণে ১৪ বছরের কিশোরী অন্তঃসত্তা। ঘটনাটি উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়নের মরিচালি গ্রামে। বখাটে ধর্ষক এ গ্রামের সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) গৌরীপুর থানায় কিশোরীর বাবা রাসেল মিয়া (২৬) কে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনার বিষয়ে মামলার বাদী ভিক্টিমের বাবা বলেন, আমি গরীব মানুষ। সংসার চালাতে মেয়েকে তার দাদীর কাছে রেখে আমরা স্বামী-স্ত্রী ঢাকার গাজীপুরে গার্মেন্টসে কাজ করি। আর এই সুযোগে প্রতিবেশি রাসেল আমার মেয়ের এ সর্বনাশ করে। কয়েকদিন পূর্বে বাড়িতে এসে মেয়ের শারিরীক পরিবর্তন দেখতে পায় মেয়ের মা। পরে স্থানীয় একটি ডায়াগনোস্টিক সেন্টারে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর জানতে পারি আমার মেয়ে ২৬ সপ্তাহের অন্তঃসত্তা। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে রাসেল মিয়াকে আসামী করে গৌরীপুর থানায় মামলা দায়ের করেছি। মামলা করার আগে থেকেই অন্তঃসত্তা মেয়ের পেটের বাচ্চা নষ্ট করার জন্য চাপ দিচ্ছে বখাটে রাসেল ও তার পরিবার।

এ ঘটনার বিষয়ে ভিক্টিমের দাদী বলেন, ৭/৮ মাস আগে আমি বাড়িতে না থাকার সুযোগে রাসেল আমার নাতনীকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে ও বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য নিষেধ করে ও বিভিন্ন হুমকি ধামকি দেয়। এতে আমার নাতনী অন্তঃসত্তা হয়ে পরে।

এ বিষয়টি রাসেলের পরিবারকে জানালে রাসেলকে তড়িঘড়ি করে অন্য জায়গায় বিয়ে করায়। ভিক্টিমকে বিভিন্নভাবে রাসেল ও তার পরিবার বাচ্চা নষ্ট করে মীমাংসার জন্য চাপ দেয়। এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এইআই আবুল বাশার বলেন, মামলা দায়েরের পর অন্তঃসত্তা কিশোরীকে ফরেনসিক পরীক্ষা করানো হয়েছে। ধর্ষক রাসেলকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 9
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর