• রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:০৫ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

“নিরাপদ স্কুলে ফিরি” ক্যাম্পেইন ও বিনামূল্যে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ

প্রদীপ রায় জিতু, দিনাজপুর
প্রকাশ হয়েছে : সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭:১১ pm
                             
                                 

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ”নিরাপদ স্কুলে ফিরি” ক্যাম্পেইন ও বিনামূল্যে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ কর্মসূচি করা হয়। রবিাবর (১৩ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠানে শিশু ফোরাম সভাপতি নুরনবী ইসলাম এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জনাব মো মোশারফ হোসেন (বাবুল)। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীরগঞ্জ পৌরসভার (৪,৫,৬ নং ওয়ার্ড) এর মহিলা কাউন্সিলর নার্গিস আক্তার, ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ বীরগঞ্জ এপি ম্যানেজার মানুয়েল হাসদা, প্রোগ্রাম অফিসার ভিক্টোরিয়া বিশ^াস, স্পন্সরশীপ ও চাইল্ড প্রোটেকশন অফিসার রাইমন্ড হাসদা, যুব ফোরাম সভাপতি প্রদীপ রায় জিতু, সাবেক বিভাগীয় শিশু ফোরাম সভাপতি মোশের্দ হাসান আসিফ, যুব ফোরাম সাংগঠনিক সম্পাদক রাকেশ রায়, যুব ফোরাম সদস্য রতন রায়, এছাড়াও উপিস্থত ছিলেন অন্যান্য যুব ও শিশু ফোরামের সদস্য ও ওয়ার্ল্ড ভিশনের কর্মীকর্তাগন ।
উক্ত ক্যাম্পেইনে শিশুদের স্কুলে ফিরে যাওয়া, তাদের নিরাপত্তা, শিশু সুরক্ষা ও বাল্যবিবাহের বিষয়ে বিশেষ করা হয়। সভায় প্রধান অতিথি মেয়র বলেন, আমরা নারী ও শিশুদের বিষয়টিকে সবার্ধিক গুরুত্ব দিয়ে থাকি। আমরা পৌরসভাটিকে বাল্যবিবাহ মুক্ত করতে সবোর্”চ চেষ্টা করবো। এই সময় তিনি শিশু ফোরাম, যুব ফোরাম ও ওয়ার্ল্ড ভিশনসহ সকল সংস্থার সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি বলেন, আমরা যেকোন সময়ে শিশু ফোরাম, যুব ফোরাম ও ওয়ার্ল্ড ভিশনের পাশে আছি। তিনি শিশু ফোরাম ও ওয়ার্ল্ড ভিশনকে এই ধরনের সুন্দর কর্মসূচী আয়োজন করার জন্য বিশেষ ধন্যবাদ জানান।
বিশেষ অতিথি মানুয়েল হাসদা বলেন, ১০০% শিক্ষার্থীরা যেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে, নিরাপদে স্কুলে ফিরতে পারে, সেই লক্ষ্যে ওয়ার্ল্ড ভিশন “নিরাপদ ইশকুলে ফিরি’ ক্যাম্পেইন পরিচালনা করে যাচ্ছি। তিনি উপস্থিত ছাত্র-ছাত্রীদের মাস্ক পরা, সামাজিক দুরত্ব ও বার বার হাত ধোয়ার উপরে বিশেষ জোর দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন। । তিনি শিশু সৃরক্ষা ও চাইল্ড হেল্প ডেস্ক সেবা (১০৯৮) বিষয়েও আলোকপাত বলেন। তিনি পৌরসভাকে বাল্যবিবাহ মুক্ত করার জন্য উপস্থিত কাউন্সিলর, মেয়র ও শিশু ফোরামকে বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য অনুরোধ করেন।
বিশেষ অতিথি কাউন্সিলর নাগির্স আক্তার বলেন, আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। করোনাকালীন এই সময়ে আমরা সবাই যেন সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিদ্যালয়ে যাই। তিনি ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশকে এলাকার ও শিশুদের জন্য বিভিন্ন ভাল কাজের জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি আরও বলেন, শিশু সুরক্ষা ও শিশুদের সহায়তায় পৌরসভা বদ্ধ পরিকর। পৌরসভা যেকোন সহায়তা আছে বলে আশা প্রকাশ করেন।
সভাপতি বলেন, শিশু ফোরাম প্রায় ২০১১ সাল হতে শিশু সুরক্ষাসহ বিভিন্ন ধরনের সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এই সুন্দর উদ্দ্যেগে ওয়ার্ল্ড ভিশনসহ বিভিন্ন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো কাজ করে আসছে। তিনি সকল শিশুকে স্কুলে ফিরে যাওয়ার অনুরোধ করেন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দান করেন। তিনি বাল্যবিবাহসহ শিশু সুরক্ষা বিভিন্ন ইস্যুতে সহযোগিতা করার জন্য সরকারী বেসরকারী সংস্থাগুলোকে সহযোগিতা করার জন্য বিশেষ অনুরোধ করেন।
আলোচনা সভার শেষে ৩৩০ জন শিশুর মাঝে ১১১৫ টি খাতা ও ২৩৪ টি ছাতা বিতরন করা হয়। ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ এই কর্মসূচীর মাধ্যমে তার কর্ম এলাকায় পর্যায়ক্রমে মোট ৮৩০০ টি খাতা ও ১৭০০ ছাতা শিশুদের মাঝে বিতরণ করছে। উক্ত অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আলোকিত শিশু ফোরাম এর সদস্য মাজেদুল ইসলাম ও তারিন সুলতানা।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগের আরো খবর