• বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:২৯ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

বঙ্গবন্ধুকে হারানোর শোককে শক্তিতে রূপান্তর করতে হবে: এমপি শাহীন চাকলাদার

আবু হুরাইরা রাসেল কেশবপুর (যশোর)
প্রকাশ হয়েছে : শুক্রবার, ৭ আগস্ট ২০২০ | ১২:৪২ am
                             
                                 

যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনের সংসদ সদস্য ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার বলেছেন, জাতির পিতাকে হারানোর শোককে শক্তিতে রূপান্তর করে তার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে সবাইকে আত্মনিয়োগ করতে হবে।

বাঙালি জাতির ইতিহাসে ১৫ আগস্ট এক কলঙ্কিত অধ্যায়। দেশের স্বাধীনতাবিরোধী ষড়যন্ত্রকারীদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ মদদে ঘাতকচক্রের হাতে ধানমন্ডির নিজ বাসভবনে বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান শহীদ হন। একই সঙ্গে শহীদ হন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, পুত্র শেখ কামাল, শেখ জামাল, শিশুপুত্র শেখ রাসেলসহ অনেক নিকটাত্মীয়। এ নৃশংস ঘটনা কেবল বাংলাদেশের ইতিহাসে নয়, পৃথিবীর ইতিহাসেও বিরল।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কেশবপুর আবু শারাফ সাকেক অডিটোরিয়ামে কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালনের প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমীনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফার পরিচালনায় অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যশোর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান শাহারুল ইসলাম, যশোর শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু, কেশবপুর পৌরসভার মেয়র রফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গৌতম রায়, দপ্তর সম্পাদক মফিজুর রহমান মফিজ, পাঁজিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মুকুল, মঙ্গলকোট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বজলুর রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক ভাইস চেয়ারম্যান পলাশ মল্লিক, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগনেতা শহিদুল্লাহ প্রমুখ।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার ওলিয়ার রহমান, কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এইচ এম আমির হোসেন, সহ-সভাপতি এ্যাড. রফিকুল ইসলাম পিটু, সহ-সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান শাহাদাৎ হোসেন, যুগ্ম-সম্পাদক ভাইস চেয়ারম্যান নাসিমা সাদেক,  যুগ্ম-সম্পাদক সাবেক চেয়ারম্যান ইয়ার মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক পৌর কাউন্সিলর শেখ এবাদত সিদ্দিক বিপুল, সাংগঠনিক সম্পাদক সাগরদাঁড়ী ইউপি চেয়ারম্যান কাজী মুস্তাফিজুল ইসলাম মুক্তো, সুফলাকাটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ মাষ্টার, ত্রিমোহিনী ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান আনিস, সাতবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান শামছুদ্দিন দফাদার, বিদ্যানন্দকাটি ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন,  গৌরীঘোনা ইউপি চেয়ারম্যান এস এম হাবিবুর রহমান হাবিব, উপজেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ স্বপন মুখার্জী, সদস্য শাহাদাৎ হোসেন, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক প্যানেল মেয়র বিশ্বাস শহিদুজ্জামান শহিদ, যুগ্ম-আহ্বায়ক আবু সাঈদ লাভলু,  উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী রাবেয়া ইকবাল, সাধারণ সম্পাদিকা মমতাজ খাতুন, পৌর মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদিকা ফাতেমা খাতুন, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কাজী আজাহারুল ইসলাম মানিক, যুগ্ম-আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান খান মুকুল স্বেচ্ছাসেবক লীগনেতা আবুল বাসার খান, মাসুদুর রহমান প্রমুখ।
সভায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে জাতীয় শোক দিবস পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 3
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর