• শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০৪:২৮ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

জনগণকে সচেতন করার জন্য বিরামহীন ভাবে ছুটে চলছেন ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি

মো: আসাদুজ্জামান, ঠাকুরগাঁও
প্রকাশ হয়েছে : শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১ | ৯:৫৫ pm
                             
                                 

চুরি, ছিনতাই, ইভটিজিং ও মাদক নির্মুল সহ সকল প্রকার অরাধ নির্মূলে জনগণকে সচেতন করতে বিরামহীনভাবে ছুটে চলছেন ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) তানভিরুল ইসলাম।
এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার দিনব্যপী সদর থানার অন্তর্ভূক্ত বালিয়া, বড়গাঁ, দেবীপুর সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চললের মসজিদ, খেলার মাঠ ও হাটবাজারে জনগণের সাথে সরাসরি কথা বলেছেন তিনি।
সমাজের নানা রকম সমস্যা সমাধানের জন্য একজন ওসি জনগণের দোরগরায় পৌঁছে যাওয়ার বিষয়টি হৃদয়স্থল থেকে গ্রহণ করেছেন এসব প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষগুলো।
ওসি তানভিরুল ইসলাম সেসব জনগণকে বোঝানোর চেষ্টা করেছেন যে, সমাজে যারা খারাপ কাজের সাথে লিপ্ত তাদের সংখ্যা খুবই কম। সমাজে ভালো মানুষের বসবাস এখনো অনেক বেশি। এই কম সংখ্যক খারাপ মানুষ সমাজটাকে অস্থিতিশীল করে তোলে। কারন একটাই! আমরা সমাজের মানুষগুলো প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারছিনা। এটা অপ্রিয় হলেও সত্যকথা যে, আমরা প্রতিবাদ না করায় দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিচ্ছি। স্থানীয় জনগণ যদি পুলিশকে সহযোগিতা করে তাহলে সমাজ থেকে এসব অপরাধীদের পদচিহ্ন মিশিয়ে দেওয়া সম্ভব। ওসি তাদের বলেন, আপনাদের যেকোন সমস্যা সরাসরি পুলিশকে অবহিত করুন পুলিশ আপনাদের জন্য সদা প্রস্তুত ও কার্যকরী ভূমিকা রাখতে বদ্ধপরিকর।
ওসি আরও বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ে এখন তীব্র শীত ও ঘণকুয়াশা পড়ছে। ইদানিং লক্ষ্য করা যাচ্ছে আগের তুলনায় গরু চুরির দৌরত্ম বেড়েছে। সেই সাথে নতুন করে আরও একটি সমস্যা লক্ষ্য করা যাচ্ছে, সেটি হলো খাবারের সাথে ঘুমের ঔষুধ মিশিয়ে অচেতন করে ঘর থেকে টাকা ও সোনা গহনা লুট। এর জন্য আপনাদের সজাগ থাকতে হবে। বাড়ির ভেতরে কোন রকম অপরিচিত কাউকে প্রবেশ করতে দেবেন না। সন্দেহভাজন কাউকে দেখলে পুলিশে খবর দিন। এসব অপরাধ চক্রের মানুষজন আপনাদের আশে পাশে বসবাস করছে। স্থানীয়দের সহযোগিতায় আপনাদের বাসার খাবারে এসব ঘুমের ঔষধ মিশিয়ে দিচ্ছে।
মা-বোনদের উদ্দেশ্যে ওসি তানভিরুল ইসলাম বলেন, আপনারা যারা রাস্তায় বিভিন্ন কাজে চলাফেরা করেন তারা অবশ্যয় সদর থানার নাম্বার ও স্থানীয় বিট পুলিশিং এর নাম্বার সঙ্গে রাখবেন। বখাটে ছেলেরা আপনাদের উত্যক্ত করলে চুপ থাকবেন না বরং প্রতিবাদ করবেন। পুলিশ আপনাদের সাহস হয়ে সহায় হয়ে পাশে আছে। আমি কথা দিলাম আপনাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আমি সদা প্রস্তুত আছি। আপনারা ইভটিজিং এর শিকার হলে স্থানীয় বিট পুলিশিং এর সহযোগিতা নিবেন অথবা সরাসরি আমার নাম্বারে যোগাযোগ করবেন।
এছাড়াও যেসব মানুষ বিপদে পড়বেন বা সমস্যার সম্মুখীন হবেন সরাসরি সদর থানায় চলে আসবেন। কাউকে তদবির করতে হবেনা কোন মানুষ সঙ্গে আনতে হবেনা। আমি ওসি তানভিরুল ইসলাম নিজ হাতে আপনার আনিত অভিযোগ লিখে দিবো। এক কথায় আপনারা যে কোন রকম সমস্যায় পড়লে পুলিশের স্মরণাপন্ন হবেন পুলিশ আপনার সমস্যাটা নিজের মনে করে আপনাদের সেবা দিবে। সেই সাথে যুবকদের দৃষ্টি আকর্ষন করে ওসি বলেন আপনারা সকলে বাবা মায়ের সেবা করবেন। বাবা মা কোন সন্তানের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ আমার কাছে আনলে চুল পরিমান ছাড় দেওয়া হবেনা। ওসি সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান ও পুলিশকে সহযোগিতা করার আহহ্বান করেন।
এ সময় বালিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: নুরে-আলম মুক্তি, দেবীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: মোয়াজ্জিন হোসেন, জেলা পরিষদ সদস্য মো: তুষার সহ স্থানীয় গণমান্য ব্যক্তিবর্গ ওসি তানভিরুল ইসলামকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং ওসি তাদের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। সেই সাথে পুলিশকে সব রকম সাহায্য করার কথা জানান স্থানীয় জনগণ।
সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগের আরো খবর