• শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ১২:১৪ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন নিলেন শেখ হাসিনা লালপুরে প্রতীক বরাদ্দের পর জমে উঠেছে লালপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন বাগেরহাটে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর পেয়ে খুশি মুক্তিযোদ্ধা রতন বিশ্বাস বোয়ালমারীতে ফসলি জমি থেকে মাটি কাটায় ইটভাটাকে জরিমানা সুন্দরগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার বোয়ালমারীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হামলা আহত ১ শ্যামনগরে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ জাতীয় দিবস উদ্যাপনে প্রস্ততি সভা গৌরীপুরে কৃষি কর্মকর্তা হাবিবুল ইসলামের বিদায় সংবর্ধনা সিংগাইর কলেজের ভিপি মিরু হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন গৌরীপুরে নব-নির্বাচিত পৌর মেয়র সৈয়দ রফিককে সংবর্ধনা

মণিরামপুরে ক্লিনিক মালিকের জেল, দুইজনের জরিমানা

আনোয়ার হোসেন, (মনিরামপুর) যশোর
প্রকাশ হয়েছে : সোমবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২০ | ৯:৪৫ pm
                             
                                 

হাসপাতাল হলেও চিকিৎসক এবং ডিপ্লোমা নার্স না থাকায় যশোরের মণিরামপুরে প্রগতি ডিজিটাল ডি-ল্যাব ও রিজু হাসপাতালের মালিক মোহাম্মদ আলী জিন্নাহকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

একই সাথে ডক্টরস ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও জিনিয়া প্যাথলজিক্যাল ল্যাবরেটরি নামের প্রতিষ্ঠান দুইটিকে ৫০ হাজার করে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (৭ ডিসেম্বর) বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ইউএনও সৈয়দ জাকির হাসান অভিযান চালিয়ে এই দণ্ড দেন।
অভিযানে যশোরের সিভিল সার্জন ডা.শেখ আবু শাহীন, মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা.শুভ্রারানী দেবনাথ এবং ডা. অনুপ বসু অংশ নেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বেঞ্চ সহকারী সাইফুল ইসলাম বলেন, সরকারি অনুমোদন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি, নির্ভুল রিপোর্ট না দেওয়া, সরকার নির্ধারিত দামের সাথে বাউচারের মিল না থাকায় ভোক্তা অধিকার আইনে জিনিয়া প্যাথলজিক্যাল ল্যাবরেটরির মালিক মনিরুজ্জামান জনিকে ৫০ হাজার টাকা, ডক্টরস ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক জাকির হোসেনকে ৫০ হাজার টাকা এবং চিকিৎসক ও নার্স না থাকায় প্রগতি ডিজিটাল ডি-ল্যাব ও রিজু হাসপাতালের মালিক মোহাম্মদ আলী জিন্নাহকে ৫০ হাজার টাকা; অনাদায়ে তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। পরে জরিমানা দিতে না পারায় মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর কারাদণ্ড বহাল রাখা হয়।

যশোরের সিভিল সার্জন ডা.শেখ আবু শাহীন বলেন, নানা অনিয়মের অভিযোগে প্রতিষ্ঠান তিনটিতে অভিযান চালিয়ে দণ্ড দেওয়াসহ তাদের সকল কার্যক্রম বন্ধ করা হয়েছে। একইসাথে ল্যাব স্বাদ নামে একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের কার্যক্রম বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ইউএনও সৈয়দ জাকির হাসান অভিযান ও দণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 17
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর