• বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৭:২৯ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

মাদারীপুরে স’ মিলের লাকড়ি দেওয়ার প্রলোভনে ধর্ষণ, লম্পট ধর্ষক গ্রেফতার

ম.ম.হারুন অর রশিদ, মাদারীপুর
প্রকাশ হয়েছে : শনিবার, ২৪ এপ্রিল ২০২১ | ৬:৫৩ pm
                             
                                 
ধর্ষন-প্রতীকি ছবি

স’মিলের লাকড়ি দেওয়ার নাম করে ডেকে নিয়ে কিশোরিকে জোর করে ধর্ষণ করার দায়ে শরীফুল হাওলাদার নামের এক লম্পটের নামে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে কালকিনি থানায়
ধর্ষণ মামলা হয়। মেয়ের বাবা প্রতিবন্ধী ও মা অন্যত্র বিয়ে বসায় মেয়ে নিজেই বাদি হয়ে অভিযোগ করেন। রাতেই সাহেবরামপুর বাজার থেকে ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে কালকিনি পুলিশ। গত কাল দুপুরে কালকিনি পুলিশ ধর্ষককে আদালতে পাঠালে আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠান । মেডিকেল করানোর জন্য কিশোরীকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
মামলা ও এলাকা সুত্রে জানাযায়, মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার সাহেবরামপুর গ্রামের নুরু হাওলাদারের লম্পট ছেলে কিছু দিন ধরে মোবাইলে ও সামনা সামনি সমিলের লাকড়ি দিবে বলে বারবার তাকে স মিলের কাছে আসতে বলে কিন্তু কিশোরী তার কাছে না আসায় গত ১৯তারিখ সোমবার সন্ধার সময় প্রকৃতির ডাকে সারা দিতে ঘড় থেকে বেড়হলে তাকে মুখচেপে ধরে লাকড়ি দেওয়ার নাম করে স মিলের কাছের বাগানে নিয়ে মুখ বাধা অবস্থায় তাকে জোর করে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে যায়। মেয়েকে না দেখে খোজা খুিজর পড় তাকে জঙ্গলে বাধা অবস্থায় পাওয়া যায়। এ ঘটনায় শরীফুল হাওলাদার এর বাবা মায়ের কাছে নালিশ দিলে তাদেরকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয় ও মামলা করলে তারাও উল্টো চাদা বাজি মামলা দিবেন বলে সাসান।
জানাযায়, এ লম্পট ছেলে এলাকার অনেক মেয়ের ইজ্জত নষ্ঠ করেছে। এবং অনেক ঘটনা ঘটিয়ে জনগনের হাতে একাধিক বার গণধোলাই খেয়েছে। ধর্ষক শরীফুল হাওলাদার এর চাচাতো বোন বলেন,একবার আমাকে জোর করে বাগানে নিতে চেয়ে ছিল এবং টাকার লোভ দিয়ে ছিলো আমি বড় হওয়ায় আমার সাথে না পেড়ে আমার আরাক বোনের সাথে কু-কাম করে এবং জুতার বাড়ি খায়। মেয়ের বাবা এ ঘটনার সত্যি কারের বিচার চান।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 1
    Share


এই বিভাগের আরো খবর