• বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৮:৩৭ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

মানবিক কাজে থেমে না যাওয়া একজন ছাত্রলীগ নেতার গল্প

এস এম মনির, নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ হয়েছে : বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১ | ১২:০২ am
                             
                                 

বৈশ্বিক মহামারী করোনায় স্থবির হয়ে পড়েছে জনজীবন। দেশের যেকোন পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মানুষের দোরগোঁড়ায় গিয়ে বিভিন্ন সেবা প্রদান করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় করোনার প্রভাবে অসহায়, কর্মহীন ও দুর্দশাগ্রস্থ সাধারণ মানুষের দুঃখ-কষ্ট লাঘব করার প্রয়াসে তাদের পাশে এসে দাড়িয়েছেন ছাত্রলীগ নেতা অপু দাশ অনিক। মানব সেবার মহান ব্রত নিয়ে করোনার প্রথম ধাপ থেকেই মানবতার কল্যানে নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে এসে দাড়িয়েছেন এ ছাত্রলীগ নেতা। ছাত্রলীগ নেতা কুমিল্লা জেলার লাকসাম পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা অপু দাশ অনিক।

জানা যায়, পড়াশোনার পাশাপাশি টিউশনি করে অর্জিত অর্থ দিয়ে নিজের খরচ মেটানোর পর বাকি অর্থ দিয়ে ক্ষুধার্থ মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন তিনি।

১৯শে এপ্রিল সোমবার লাকসামের বিভিন্ন ওয়ার্ড সহ বাজার, রেলওয়ে জংশন এর বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে ছিন্নমুল মানুষদের ইফতার সামগ্রী ও খাবার সামগ্রী বিতরন করেন ছাত্রলীগ নেতা অপু দাশ অনিক। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ছিলো চাল, ডাল, তৈল, আলু, পেয়াজ, ছোলা বুট ইত্যাদি।

অর্থনৈতিক সমস্যা থাকলেও নিজের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় মানুষের কল্যানে এসব কর্মকান্ড অব্যাহত রেখেছেন এ ছাত্রলীগ নেতা। কলেজ প্রভাষক অতুল চন্দ্র দাশের ছেলে অপু দাশ অনিক। ২০১০ সালে লাকসাম পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ২০১২ সালে নীলকান্ত সরকারী কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করে বর্তমানে কুমিল্লার ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এ স্নাতক শেষ করেন। পড়াশোনার পাশাপাশি রাজনৈতিক কর্মকান্ডে জড়িত থেকে মানুষের কল্যানে কাজ করে যাচ্ছেন।

অপু দাশ অনিক জানান, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি ও লাকসাম-মনোহরগঞ্জের মাটি ও মানুষের নেতা বাংলাদেশ স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রী তাজুল ইসলাম (এমপি) মহোদয়ের নির্দেশনায় ও অনুপ্রেরণায় উৎসাহিত হয়ে কখনো কোন পদ-পদবীর আশা না করে বিবেকের তাড়নায় কর্মহীন হয়ে পড়া হতদরিদ্র মানুষের জন্য আমার ব্যক্তিগত অর্থায়নে করোনার প্রথম ধাপ থেকেই মানুষের কল্যাণে কাজ করার চেষ্টা করে যাচ্ছি। সামনের দিনগুলোতেও আমার নিজ অর্থায়নে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ও মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ অব্যাহত থাকবে। আমাদের সবার ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা ও জনসচেতনতাই পারে এই মরণঘাতী ভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করতে। আর এভাবেই যার যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসাই আমাদের সকলের কাম্য। এই দেশ আপনার, আমার, সকলের। আসুন যার যার অবস্থান থেকে এবং সামর্থ্য অনুযায়ী নিজ নিজ এলাকার দায়িত্বটুকু হাতে নেই।

এছাড়া অপু দাশ অনিকের এ মহতী কর্মকান্ড সফল করতে সহযোগিতা করেছেন লাকসাম উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মাইনুল ইসলাম রাসেল, ছাত্রলীগ নেতা প্রান্ত, অয়ন, শুভ, সঞ্জয় প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত বছর করোনার প্রথম ধাপ থেকেই তিনি লাকসাম-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার থেকে শুরু করে ওনার এলাকায় প্রায় ৫০টির অধিক পরিবারের মাঝে নিজ অর্থায়নে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 1
    Share


এই বিভাগের আরো খবর