• মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৩৫ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

মা ইলিশ রক্ষায় মোহনপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ঈর্শ্বাণীত সফলতা

ইখতেখার আহমদ
প্রকাশ হয়েছে : মঙ্গলবার, ৩ নভেম্বর ২০২০ | ৯:১৫ pm
                             
                                 

মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান চলাকালীন চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি ব্যাপক ভূমিকা রেখেছে।

অভিযান চলাকালে মোহনপুর নৌ-পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মোহম্মদ হোসেন সরকারের নেতৃত্বে ২৫ জন জেলে আটক, ৯ লাখ ৫৩ হাজার মিটার কারেন্ট জাল, ৩২১ কেজি মা ইলিশ, ৮টি মাছ ধরার ট্রলার ও মোবাইল কোর্টে জরিমানা ২ হাজার টাকা, যার আনুমানিক মূল্য ৩ কোটি ১৪ লাখ ২৫ হাজার ৫শত টাকা। নিয়মিত মামলা ৭টি, আসামী ১০জন আটক করা হয়।

মোহনপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মোহম্মদ হোসেন সরকার জানান, মা ইলিশ সংরক্ষণে আমরা ২৫জন জেলেকে মা ইলিশ আহরণকালে আটক করা হয়, আটকদের মধ্য ৭ জনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১ মাস করে জেল। ৭টি নিয়মিত মামলায় ১০ জন আসামী, জরিমান ৪ জনকে, অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় ৪ জনকে মুচলেকার মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়া হয়।এ সময় ৩২১ কেজি মাছ জব্দ করা হয়, যান আনুমানিক মূল্য ১ লাখ ৬০ হাজার ৫ শত টাকা।

তিনি আরো বলেন, ৯ লাখ ৫৩ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়, যার আনুমানিক মূল্য ২ কোটি লাখ ৮৫ লাখ ৯০ হাজার টাকা।
৮টি মাছ ধরার নৌকা আটক করে নষ্ট করে দেয়া হয়, যার আনুমানিক মূল্য ২৬ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। সর্বমূল্য আনুমানিক মূল্য ৩ কোটি ১৪ লাখ ২৫ হাজার ৫ শত টাকা। মা ইলিশ রক্ষায় আমরা রাত-দিন নিরলসভাবে অভিযান পরিচালনা করেছি।

মোহনপুর নৌ পুলিশ ফাঁড়ির জনবল সংকট থাকলেও মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে তারা পুরো সফল বলে দাবী করেন মতলব উত্তরের সর্বস্তরের মানুষ।
মোহনপুর নৌ- পুলিশ সূত্রে জনা যায়, অত্যাধুনিক স্প্রীডবোর্ড নাই, জনবল সংকট এসআই ১জন, এএসআই ৩জনের স্থলে ২জন, কনস্টেবল ১৫ স্থলে ৯জন, নায়েক ১জনের পদ থাকলেও দীর্ঘদিন যাবৎ থেকে শূণ্য রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 1
    Share


এই বিভাগের আরো খবর