• রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৮:৪৬ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
সাতক্ষীরায় ৪০০ বছরের পুরাতন স্বর্ণ স্বদৃশ্যের রাধা-রানী মুর্তি উদ্ধার শ্যামনগরে মাদক ইভটিজিং বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে থানা পুলিশের সভা সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব নির্বাচনে সম্মিলিত সাংবাদিক ঐক্য পরিষদের বাপী-সুজন প্যানেল বিজয়ী চুয়েটে তিনদিনব্যাপী পুরকৌশল বিষয়ক আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সম্পন্ন তাহিরপুর সীমান্তে মদসহ ১ ব্যবসায়ী গ্রেফতার দেশের নদ-নদীর প্রাণ ফিরিয়ে আনার কাজ করে যাচ্ছে সরকার -পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী প্রতারণা মামলায় গ্রেফতার নাচোলের মিলন ইবি’র ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের নতুন সভাপতি নিয়োগ সিংগাইরে স্ত্রী হত্যার দায় স্বীকার করলেন স্বামী রামগঞ্জে আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ ১৫ পরিবারের পাশে কেন্দ্রীয় যুবদল নেতা ইমাম হোসেন

মেধাবী কলেজছাত্র বোরহান হত্যার বিচার চেয়ে রাস্তায় শিক্ষার্থীরা

আনোয়ার হোসেন, (মনিরামপুর) যশোর
প্রকাশ হয়েছে : সোমবার, ৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৫:৫৩ pm
                             
                                 

যশোরের মণিরামপুরে মোটরসাইকেল ছিনতাইকারী সন্দেহে বোরহান কবির (১৮) নামে এক মেধাবী কলেজ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় রাস্তায় নেমেছে শিক্ষার্থীরা। সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১২টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত দুই ঘন্টাব্যাপি মণিরামপুর পৌরশহরে বিক্ষোভ মিছিল ও মানবনন্ধন করেছে বোরহানের সহপাঠিসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা হত্যাকা-ের সাথে জড়িতদের গ্রেফতারপূর্বক ফাঁসির দাবি করে। এরআগে একই দাবিতে রোববার বিকেলে মণিরামপুর থানা ঘেরাও করেছিল বোরহানের এলাকাবাসী।

বোরহান কবির মণিরামপুর হাসপাতালসংলগ্ন মোহনপুর গ্রামের টেকার চালক আহসানুল কবিরের ছেলে। সে মণিরামপুর সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিল। এসএসসিতে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছিল বোরহান। বেশ কয়েকদিন ধরে মানসিক রোগে ভুগছিল সে।

শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে সাইকেল চালিয়ে পৌরশহর থেকে উপজেলার খালিয়া গ্রামে যায় বোরহান। তখন মোটরসাইকেল ছিনতাইকারী ভেবে নাইম হোসেন নামে এক যুবক তাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে। খবর পেয়ে রাজগঞ্জ ক্যাম্পের পুলিশ বোরহানকে হাতকড়া পরিয়ে নিয়ে যায়। পরে দুপুর একটার দিকে তাকে উদ্ধার করে মণিরামপুর হাসপাতালে আনা হয়। অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় রাতে বোরহানকে ঢাকায় নেওয়া হয়। পরে রোববার ভোরে মৃত্যু হয় তার।

এদিকে ঘটনারদিন বোরহানকে গ্রেফতারের সাথে ঘাতক নাইমকেও আটক করেছিল পুলিশ। পরে বোরহানের পিতা থানায় মারপিটের মামলা করলে পুলিশ নাইমকে গ্রেফতার দেখিয়ে রোববার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠায়।

বোরহান হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রাজগঞ্জ ক্যাম্পের উপ-পরিদর্শক তপনকুমার নন্দী বলেন, নাইম হোসেন নামে একজন আসামি জেলহাজতে আছে। মারপিটের মামলাটি হত্যা মামলায় পরিণত করতে আদালতে প্রেয়ার দেওয়া হয়েছে। ঘটনার সাথে আরো কেউ জড়িত আছে কিনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে ।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 1
    Share


এই বিভাগের আরো খবর