• শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৫৭ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
সুনামগঞ্জে নদীতে ডুবে নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার ঘোড়াঘাটে প্রতিবন্ধী ভাতার চেক আটক রেখে টাকা দাবীর অভিযোগ ইসলামপুরে গ্রামীন জনপদে শহরের ছোঁয়া সন্ধ্যা নামতেই মেঠপথ আলোকিত মাদারীপুরে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মাড়া গেলেন পুলিশ সদস্য শাল্লায় সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনার আরো এক আসামী গ্রেফতার মনোহরদীতে দুস্থদের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরন করেন এড. হারুনুর রশিদ বকশীগঞ্জে মাহে রমজান উপলক্ষে ব্যারিস্টার সামির ছাত্তারের উদ্যোগে নগদ অর্থ বিতরণ ইসলামপুরে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ আলফাডাঙ্গায় পুকুরে ডুবে পাঁচ বছরের শিশুর মৃত্যু সিরাজদিখানে লকডাউনে দোকান খোলায় ১৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত মুক্তিযুদ্ধের কোম্পানী কমান্ডার আকরাম হোসেন

শহিদুল ইসলাম, রাজারহাট (কুড়িগ্রাম)
প্রকাশ হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ১ এপ্রিল ২০২১ | ৭:১৯ pm
                             
                                 

রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কে এম আকরাম হোসেন। কুড়িগ্রামবাসী হারালো জেলার একজন বীর সন্তানকে। তিনি কিডনি জনিত রোগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার দুপুরে রংপুর সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু বরন করেন । মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৯বছর।
মঙ্গলবার দিবাগত রাতে কুড়িগ্রাম সদরের গড়েরপাড় বাজার ঈদগাহ মাঠ প্রাঙ্গণে তার জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এরআগে ওইদিন বিকেলে তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদান করা হয়। ওইদিন রাতে কুড়িগ্রাম কেন্দ্রীয় কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়। মৃত্যুকালে তিনি দুই পুত্র,তিন কন্যা ও এক স্ত্রী সহ অসংখ্য বন্ধু,বান্ধব,গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
অকুতোভয় বীর মুক্তিযোদ্ধা কেএম আকরাম হোসেন ১৯৭১ইং সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে কুড়িগ্রামে কোম্পানী কমান্ডারের দায়িত্বে থেকে কৃতিত্বের স্মাক্ষর রেখেছিলেন। মুক্তিযুদ্ধ কালীন সময় আগষ্ট মাসে দূর্গাপুরের অর্জুনের ডারায় রেল ব্রীজে মাইন পুতে পাক সৈন্যবাহীর ট্রেন উড়িয়ে দেয়া,কুলাঘাট-ফুলবাড়ি নদী পথে নৈকায় পাক বাহিনীর ফুলবাড়ি অভিমুখে যাত্রার সময় তার নেতৃত্বে বন্ধুক যুদ্ধে ৩২জন পাক সৈন্য নিহত হওয়া,বোমা মেরে রতনাই ব্রীজ উড়িয়ে দেয়া সহ অসংখ্য অপারেশনে তিনি নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। কুড়িগ্রাম জেলার দু’জন কোম্পানী কমান্ডারের মধ্যে একজন ছিলেন কেএম আকরাম হোসেন। কুড়িগ্রামে মহান মুক্তিযুদ্ধে তিনি অসামান্য অবদান রেখেছেন। তিনি যুদ্ধ চলাকালীন রাজারহাট,উলিপুর,কুড়িগ্রাম সদর,ফুলবাড়ি,লালমনির হাট কুলাঘাট সহ বিভিন্ন স্থানে বীরত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। কেএম আকরাম হোসেন কুড়িগ্রাম জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডিপুটি কমান্ডারও ছিলেন।
তার মৃত্যুতে জানাজা পূর্ব সংক্ষিপ্ত আলোচনায় বক্তব্য দেন,কুড়িগ্রাম বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি হারুন-অর-রশিদ লাল,সাবেক কুড়িগ্রাম সদর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল বাতেন,মুক্তিযোদ্ধা কেএম মাহফুজার রহমান,অবসর প্রাপ্ত কৃষি কর্মকর্তা মাহতার উদ্দিন প্রমূখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 7
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর