• রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:০৯ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

রাহা-রোজা দুই শিশুর পাশে সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশন

মো: আসাদুজ্জামান, ঠাকুরগাঁও
প্রকাশ হয়েছে : শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১ | ৮:৫০ pm
                             
                                 

ঠাকুরগাঁওয়ে জন্মগত থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত দুই বোন রাহা আক্তার মরিয়ম(৫) ও আরফিন রোজা(৩) এর পাশে আর্থিক সহযোগিতা নিয়ে দাঁড়িয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশন।

শুক্রবার(৩০ জুলাই) বিকেলে রোড কাজীপাড়া এলাকায় বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে মরহুমের ভাগিনা জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি নজমুল হুদা শ্যাহ এ্যাপোলো অসহায় সেই পরিবারের হাতে নগদ অর্থ তুলে দেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে মরহুমের বড় মেয়ে সিনথিয়া বিনতে সিরাজ লুনা কাতার থেকে এই সহযোগিতা করেন বলে জানান জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি নজমুল হুদা শ্যাহ এ্যাপোলো।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ পঞ্চগড় জেলা শাখার সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রথম আন্তজার্তিক বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। এছাড়া তিনি ১৯৭০ এর দিকে পঞ্চগড়ের দুই দুই বারের এমপি ছিলেন। এছাড়াও তিনি বর্তমান রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজনের বড় ভাই।

সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশন ও সাংবাকিদের ধন্যবাদ জানিয়ে ওই দুই শিশুর বাবা রাজু ইসলাম বলেন,আমার দুই মেয়ের বিষয়টি নিয়ে সাংবাদিকরা একটি সংবাদ প্রকাশ করে। এরপর সেই সংবাদের মাধ্যমে আজ আমার পাশে এসে দাঁড়িয়েছে সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশন পরিবারের সদস্যরা। আমি ধন্যবাদ জানাই তাদের। আজ তাদের দেয়া এই সহযোগিতায় আমার বাঁচ্চাদের চিকিৎসার অনেকটাই এগিয়ে যাবে।

নগত অর্থ বিতরণে উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াফু তপু,সাংগঠনিক সম্পদক মিঠুন রানা, রহিমানপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক নূর আলম প্রমূখ।

মরহুম সিরাজুল ইসলাম এমপির ভাগিনা এ্যাপোলো বলেন,“সাহায্য না পেলে রাহা-রোজাকে বাঁচাতে নিজের কিডনি বেঁচবে বাবা” এমন সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশের পর তা আমার দৃষ্টিগোচর হয়। পরে এই সংবাদটি মামা মরহুম সিরাজুল ইসলাম এমপির বড় মেয়ে সিনথিয়া বিনতে সিরাজ লুনাকে অবগত করি। পরে সে আমাদের পারিবারিক ফাউন্ডেশন “বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশন”এর পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা সেই পরিবারটিকে দেবার উদ্যোগ গ্রহন করে। আমি আজ সেটি দিতে এসেছি তাদের মাঝে। সেই সাথে এই শিশুদের উন্নত চিকিৎসার জন্য যদি পরবর্তীতে কোন সহযোগিতার প্রয়োজন হয় সেটিও করার আশ্বস দিয়েছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগের আরো খবর