• বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ০৭:১৯ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

শরণখোলা উপজেলাবাসীর সেবক হতে চান এ্যাডঃ শহীদুল ইসলাম

আবু হানিফ, বাগেরহাট
প্রকাশ হয়েছে : রবিবার, ৪ অক্টোবর ২০২০ | ৮:২৫ pm
                             
                                 

বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে বিশিষ্ট আইনজীবি ও শরণখোলা থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক বনাঞ্চল পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক এ্যাডভোকেট শহীদুল ইসলাম জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী হিসাবে গত ২৩ সেপ্টেম্বর মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন। ২৬ সেপ্টেম্বর নির্বাচন কমিশন কর্তৃক যাচাই বাছাই শেষে বৈধ প্রার্থী হিসাবে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন।

এ্যাডভোকেট শহীদুল ইসলাম বাগেরহাট জেলার শরণখোলা উপজেলার ধানসাগর ইউনিয়নের উত্তর বাধাল গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। তিনি মরহুম আলহাজ্জ আবুল হাসেম হাওলাদারের পুত্র। উপজেলার সনামধন্য ও উচ্চশিক্ষিত পরিবারের মধ্যে এ্যাডঃ শহীদুল ইসলামের পরিবার অন্যতম। ছয় ভাইয়ের মধ্যে এ্যাডঃ শহীদুল ইসলাম তার গর্বিত পিতার ৫ম পূত্র এবং শিক্ষাগত যোগ্যতায় প্রত্যেকেই উচ্চতর ডিগ্রী অর্জনকারী। তার অন্যান্য ভ্রাতাগন হলেন সাবেক মেজর জেনারেল ও সাবেক রাষ্ট্রদূত আলহাজ্জ্ব এম রফিকুল ইসলাম, (এনডিসিপিএসসি) তিনি অবসর গ্রহন করে ধর্মীয় ও সামাজিক কর্মকান্ডের সাথে সম্পৃক্ত তিনি শরণখোলার সর্ববৃহৎ মারকাজ জামে মসজিদ, এতিমখানা, হাফেজিয়া মাদ্রাসাসহ অনেক ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্টানের প্রতিষ্ঠাতা, শরণখোলা উপজেলা পরিষদের প্রথম ও সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্জ্ব হাবিবুর রহমান বর্তমান বাগেরহাট জেলা জাতিয় পার্টির সভাপতি, মোঃ কামরুল ইসলাম হারুন তারই পিতার প্রতিষ্ঠিত বাধাল আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসাবে অবসর গ্রহণ করেছেন। প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডঃ ওলিউল ইসলাম সেলিম তিনি পেশায় আইনজীবি ছিলেন, আমিনুল ইসলাম ঢাকা বিশ^ বিদ্যালয় থেকে অনার্স-মাষ্টার্স শেষ করে বর্তমানে লন্ডনের সোয়েস ইউনির্ভানিটিতে অধ্যায়নরত।

এ্যাডঃ শহীদুল ইসলাম দীর্ঘ বছর ধরে বাগেরহাট এবং খুলনায় আইন পেশায় নিয়োজিত আছেন। ১৯৮৩ সালে তার বড় ভাই শরণখোলা উপজেলা পরিষদের প্রথম চেয়ারম্যান ও বাগেরহাট জেলা জাতিয় পার্টির সভাপতি আলহাজ্জ্ব হাবিবুর রহমানের হাত ধরে এ্যাভোকেট শহিদুল ইসলাম জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে পদার্পন করেন। এ্যাডঃ শহীদুল ইসলাম বাগেরহাট জেলা জাতীয় যুব সংহতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এবং বর্তমানে কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য।

উপজেলায় বসবাসরত অনেকের সাথে কথা বলে জানা যায়, এ্যাডঃ শহিদুল ইসলাম একজন সদালাপি, পরিশ্রমী এবং সাধারন মানুষের নিবেদিত প্রাণ। তিনি শুধু একজন আইনজীবিই নন একজন সমাজ সেবক ও জনবান্ধব বটে। অনেক গরীব ও অসহায় মানুষকে বিনামূল্যে আইনি সহায়তা প্রদান করেছেন বলে জানা যায়।
এলাকার সার্বিক উন্নয়নে নিজেকে উৎসর্গ করতে চান জনবান্ধব ও বিচক্ষণ এই আইনজিবী। উপজেলার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে কথা হয় এ্যাডঃ শহিদুল ইসলামের। তিনি বলেন, জনগনের সমর্থণ ও রায় পেলে আমাদের উপজেলাকে একটি আদর্শ উপজেলা হিসাবে গড়ে তুলব। যেখানে থাকবেনা কোন বাল্য বিবাহ, ই্ভটিজিং, মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ। ভোটাররা নির্বিঘেœ ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারলে তিনি জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী এবং নির্বাচন কমিশন, উপজেলা প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা রক্ষকারী বাহিনীকে নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করার আহ্বান জানান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 216
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর