• বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১২:৪৫ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম
স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে লক্ষ্মীপুরে বৃক্ষরোপণ ও ঢেউটিন বিতরণ কেক কাটা ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত স্বেচ্ছাসেবকলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে গৌরীপুরে এতিম শিশুদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ ধর্মপাশায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিনামুল্যে মাস্ক বিতরণ রাজারহাটে সেনাবাহিনীর নিজস্ব রেশন দিয়ে সুস্থ-অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ডাসার উপজেলা প্রেসক্লাবে মিজান সভাপতি, জাফরুল সম্পাদক নির্বাচিত ঘোড়াঘাটে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ ও ঢেউটিন বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে স্বেচ্ছাসেবকলীগের শ্রদ্ধা নিবেদন বকশীগঞ্জে করোনার সংক্রমণ রোধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম অব্যাহত শ্যামনগরে অর্ধলক্ষাধিক টাকার চিংড়ী বিনষ্ট

সাত বছর পর পেল চলাচলের পথ

আবু হানিফ, বাগেরহাট
প্রকাশ হয়েছে : বুধবার, ২৩ জুন ২০২১ | ৮:১৪ pm
                             
                                 

শরণখোলা উপজেলার পাঁচ রাস্তা এলাকায় একটি পরিবারের বাড়ির সামনে ঘর তুলে পথ বন্ধ করে দেয় তাদের এক প্রতিবেশী। সরু একটি বিকল্প পথ তৈরী করে চলাচল করতো ওই পরিবারটি। নালিশ দিয়ে কোথার কোন ফল পায়নি তারা। অবশেষে মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিন ভ্রাম্যমান আদলতের মাধ্যমে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে অবমুক্ত করে দেন পরিবারটির পথ।
ভুক্তভোগী পরিবারে গৃহকর্তা আলম জমাদ্দার জানান, প্রতিবেশী দেলোয়ার হাওলাদার ও সবুজ হাওলাদার ক্ষতাসীন দলের নেতাদের ব্যাবহার করে ২০১৪ সালে তাদের বাড়ির সামনে সড়কের জমির উপর দোকান ঘর তৈরী করে পথ বন্ধ করে দেয়। বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের জানালেও কোন কাজ হয়নি। পরে বিকল্প একটি সরু পথ দিয়ে চলাচল করতে বাধ্য হই। এতে করে কোন মালামাল বাড়ির ভিতর আনা নেয়া করা যাচ্ছিল না। এমনকি বাড়িতে প্রবেশের পথ না থাকায় তার মেয়ের বিয়ে দিতে পারছিলেন না। এ অবস্থায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে তিনি আমাদের পথ অবমুক্ত করে দেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিন জানান, ওই জায়গা মূলত সড়ক ও জনপথ বিভাগের। ভুক্তভোগী পরিবারটির অভিযোগের ভিত্তিতে প্রতিপক্ষকে ঘর সরিয়ে নিতে সময় দেয়া হয়। কিন্তু তারা ঘর না সরালে ভ্রম্যমান আদালতের মাধ্যমে উচ্ছেদ করে পথ বের করে দেয়া হয়।
জানতে চাইলে প্রতিপক্ষ দেলোয়ার হাওলাদার বলেন, ওই জমি আগে আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি ছিল তাই আমরা দোকান ঘর তৈরী করেছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগের আরো খবর