• বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৮:০৫ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

সিংগাইরে অন্তঃস্বত্তা নারীকে কুপিয়ে জখম

মোঃ সাইফুল ইসলাম তানভীর, সিংগাইর (মানিকগঞ্জ)
প্রকাশ হয়েছে : রবিবার, ৩ মে ২০২০ | ১০:৫১ pm
                             
                                 

 মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার বলধারা ইউনিয়নের চর মগড়া গ্রামে ছোট বাচ্চাদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে ৫ মাসের অন্তঃস্বত্তা দুলেনাকে (৩৬) কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিবেশী মহিউদ্দিন ও তার পরিবারের লোকজন। আহত ওই নারীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুলেনার স্বামী জাহিদ হোসেন বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

রোববার (৩ মে) সকালে সরেজমিনে জানা যায়, ওই গ্রামের জমির আলী ওরফে জুলমতের পুত্র মহিউদ্দিন (৪৫), মেয়ে আমেনা (২৩) ও জসিম উদ্দিনের (২৬) পরিবারের সাথে দুলেনার পরিবারের মধ্যে ছোট বাচ্চাদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে কলহ চলছিল। এর জের ধরে গত শনিবার বিকেলে মহিউদ্দিন লোকজন নিয়ে দুলেনার বাড়িতে গিয়ে তার স্বামী জাহিদকে মারধর করে । এ সময় দুলেনা এগিয়ে গেলে তার ওপর ও চড়াও হয়। আত্মরক্ষার্থে সে তার বাবার ঘরে আশ্রয় নেয়। সন্ত্রাসীরা ওই ঘরে ঢুকে অন্তঃস্বত্তা ওই নারীকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে এবং লাঠি দিয়ে এলোপাথাড়ি মারপিট করে। তাদের ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে গেলে সন্ত্রাসীরা বীরদর্পে চলে যায়। আহত ওই নারীকে সিংগাইর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এলাকার আব্দুর রাজ্জাক (৬০), মনছের আলী (৫৫), মজিবর রহমান (৫০) ও রফিক আলী (৬০) বলেন, তুচ্ছ ঘটনার জেরে এভাবে বাড়িতে ঢুকে একজন সন্তান সম্ভবা নারী ও ইটভাটার শ্রমিক স্বামীকে মারধর করে জখম করা অমানবিক কাজ। হামলাকারীরা এলাকায় উচ্ছৃংঙ্খল প্রকৃতির লোক। এদেরকে গ্রাম থেকে বিতাড়িত করা উচিত বলেও তারা জানান এবং তদন্ত স্বাপেক্ষে উপযুক্ত বিচারও দাবী করেন তারা।

অভিযুক্ত মহিউদ্দিন বলেন, ছোট বাচ্চাদের নিয়ে পারিবারিক কলহের জেরে দুলেনার স্বামী জাহিদকে লাঠি দিয়ে একটি বারি দেয়া হয়েছে। তাছাড়া দুলেনার দা’য়ের আঘাতেই তার কপাল কেটে গেছে বলে তিনি জানান।

সিংগাইর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত ডা. তাসফিয়া আলম বলেন, আলট্রাসনোগ্রাম রিপোর্টে দেখা যায় দুলেনার গর্ভের সন্তানের কোনো ক্ষতি হয়নি। তবে তার কপালে ইনজুরিসহ শরীরের একাধিক স্থানে নীলা ফুলা জখম রয়েছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রুবেল অন্তঃস্বত্তা দুলেনাকে মারধরের কথা স্বীকার করে বলেন, তদন্ত স্বাপেক্ষে দোষিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগের আরো খবর