• বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:১৪ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

৫৮ বছরে গৌরীপুর সরকারি কলেজ

ওবায়দুর রহমান, গৌরিপুর, ময়মনসিংহ
প্রকাশ হয়েছে : রবিবার, ১ আগস্ট ২০২১ | ৭:২৩ pm
                             
                                 

আজ ঐতিহ্যবাহী গৌরীপুর সরকারি কলেজ ৫৮ বছরে পদার্পন করেছে। উত্তর ময়মনসিংহের অন্যতম বিদ্যাপিঠ এটি। অত্র অঞ্চলের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করে তুলতে ১৯৬৪ সালের ১ আগষ্ট গড়ে তোলা হয় এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিকে। গৌরীপুর পৌর শহরের কৃষ্ণপুর এলাকার জমিদার সুরেন্দ্র প্রসাদ লাহিড়ীর দৃষ্টিনন্দন বাড়ি ও ২২ একর জমিতে যাত্রা শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি।
পরবর্তীতে ১৯৯১ সালের ২৫ এপ্রিল কলেজটি সরকারিকরণ হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকে দীর্ঘ ৫৭ বছর যাবত নানান সংকট আর সীমাবদ্ধতায় শিক্ষার্থীদের মাঝে জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে যাচ্ছে।
প্রাকৃতিক পরিবেশে গড়ে উঠা কলেজ ক্যাম্পাসটি পরিদর্শন করতে বিভিন্ন স্থান থেকে দর্শনার্থীরা আসেন।
কলেজটিতে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে অধ্যয়ন করার সুযোগ রয়েছে। পাশাপাশি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভ‚ক্ত স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতক (পাস) কোর্সের পাঠদান করানো হয়ে থাকে।
কলেজটিতে স্নাতক (পাস) কোর্সের বি.এ, বি.এস.এস, বি,এস,সি ও বি.কম বিভাগ চালু রয়েছে দীর্ঘদিন যাবত।
২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষে কলেজটিতে স্নাতক কোর্সের প্রবর্তন করেন প্রয়াত স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. ক্যাপ্টেন (অব:) মজিবুর রহমান ফকির। বর্তমানে কলেজটিতে বাংলা, সমাজকর্ম, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, মনোবিজ্ঞান, হিসাব বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনাসহ মোট ৬টি বিষয়ের স্নাতক (সম্মান) বিভাগ চালু আছে।
কলেজের শিক্ষার্থীদের সামরিক প্রশিক্ষণের জন্য রয়েছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোর (বিএনসিসি) ও সমাজ সেবামূলক কাজের অনুপ্রেরণার জন্য রয়েছে রোভার স্কাউট ইউনিট।
এ কলেজে দূরবর্তী ছাত্রদের পড়াশোনার জন্য ২টি ছাত্রাবাসও রয়েছে। যার একটি উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের জন্য আর অন্যটি স্নাতক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য। এছাড়াও খেলাধুলার জন্য রয়েছে বিশাল আয়তনের একটি মাঠ।
গৌরীপুর সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর মিলটন ভট্টাচার্য জানান, কলেজে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৮ হাজার। কলেজে অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ, অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষক সহ ৪৬ জন শিক্ষক কর্মরত আছেন। এছাড়াও কলেজটিতে বিভিন্ন শ্রেণীর ৫০ জন কর্মচারী কর্মরত রয়েছে। তিনি আরো বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে কলেজ বন্ধ থাকায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে কোনো কর্মসূচি করা যাচ্ছে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগের আরো খবর