• শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১২:১৩ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

নাটোরের সিংড়ায় শেখ রাসেল শিশু পার্ক এবং মিনি স্টেডিয়াম হবে-আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক

মোঃ সাহীন ইসলাম লালপুর (নাটোর)
প্রকাশ হয়েছে : রবিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০২০ | ৯:৪৮ pm
                             
                                 

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেন, সিংড়ায় শেখ রাসেল শিশু পার্ক এবং মিনি স্টেডিয়াম হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার তরুন যুবকদের আইটি সেক্টরে কাজ করার সুবিধার্তে হাইটেক পার্ক নির্মান করে দিচ্ছে।

রবিবার ১৩ নভেম্বর বিকেলে সিংড়া উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ আয়োজিত মুজিববর্ষ উপলক্ষে সিংড়া পৌর এলাকার ২১ টি সিসিটিভি স্থাপন এবং ১০ টি পয়েন্টে ফ্রি ওয়াই ফাই উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে এসব বক্তব্য রাখেন।

সিংড়া পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মো: জান্নাতুল ফেরদৌস এর সভাপতিত্বে ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক নাজমুল হক বকুলের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট ওহিদুর রহমান শেখ, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শরিফুল ইসলাম শরিফ, ফ্রিল্যান্সার হাসিবুল হাসান এমিল, মাধব চন্দ্র দাস প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে অনলাইনে ক্লাস চলছে। করোনার সময় ও বাংলাদেশ থেমে নাই। অসচ্ছল গরীব, মেধাবীদের জন্য সিংড়ায় ১০ টি পয়েন্টে ওয়াই ফাই জোন করে দেয়া হচ্ছে।

অনলাইনে ক্লাস করার জন্য ফ্রি ওয়াই ফাই সিংড়া পৌর কমিউনিটি সেন্টারে খুলে দেয়া হবে। সিংড়ায় বসে ফ্রিল্যান্সাররা অনলাইন মার্কেটে বড় বড় কাজ করবে।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, মাত্র ১২ বছরে দেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত হয়েছে। জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান সোনার বাংলা গড়তে চেয়েছিলেন।

বঙ্গবন্ধু কন্যা রুপকল্প দিয়েছেন তা বাস্তবায়নের পথে। অল্প সময়ের মধ্য বাংলাদেশ দ্রুত অর্থনৈতিক রাষ্ট্রে পরিনত হচ্ছে। করোনার এই মহামারী মোকাবেলায় বাংলাদেশ সক্ষমতা অর্জন করেছে। ৬৬৮৬ টি তথ্য সেবা কেন্দ্রে মানুষ সেবা গ্রহন করছে।

প্রতিমন্ত্রী পলক আরো বলেন, সিংড়া পৌরসভা দীর্ঘ ১৬ বছর উন্নয়ন ঠিকমতো হয়নি। মানুষ পৌরসভায় মেয়রকে পায়নি। কার্ড নিতে ঘুষ দিতে হয়েছে। পৌর নাগরিকরা সুবিধা বঞ্চিত ছিলো। দোকানদারকে বাঁকি দিতে হয়েছে। চাঁদা দিতে হয়েছে। এখন তা দিতে হয় না। সিংড়া পৌরসভায় কোনো দুর্নীতি নাই।

নির্বাচন আসলে অতিথি পাখিদের আগমন ঘটে। প্রতারক, ভন্ড, কাপুরুষ থেকে দুরে থাকতে হবে। কথায় নয় আমরা কাজে বিশ্বাসী লোক চাই। করোনার সময় পরিবার থেকে ৫৫ দিন বিচ্ছিন্ন থেকে সিংড়ার মেয়র ফেরদৌস মানুষের পাশে ছিলো। সে করোনা, বন্যা, অসুস্থ মানুষের সেবা করেছে। এমন মানবিক মেয়র কে হারালে আমাদের আফসোস করতে হবে। এজন্য তাঁর জন্য সবার কাছে দোআ চান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 3
    Shares


এই বিভাগের আরো খবর